টাইমলাইনবিধানসভা নির্বাচনভারতরাজনীতি

নির্দলের থেকেও কম ভোট, হিমাচলে জয়ী আসনে চার নম্বরে বাম প্রার্থী! হিমালয়ের কোলে শূন্য CPM

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ এক নয়, দুই নয়, তিন নয়, এক্কেবারে চার! শুধুই হার? না, হিমাচল প্রদেশে লজ্জার হারের মুখোমুখি হল বাম শিবির। কংগ্রেস – বিজেপি তো দূর! নির্দল প্রার্থীর কাছেও পরাজিত সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাকেশ সিংহ (Rakesh Singha)। পূর্বের জয়লাভ করা আসনে জোর ধাক্কা খেলো সিপিএম (CPM)। জেতা আসনেই এ বার চার নম্বরে চলে গেল লাল বাহিনী।

সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাকেশ সিংহের রাজধানী শিমলার অদূরের থিয়োগ আসন ২০২২ সালে নিজের হাতের মুঠোয় করল কংগ্রেস। প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি কুলদীপ সিংহ রাঠৌর থিয়োগ আসনে এ বার প্রায় ৩০ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গেরুয়া শিবির। বিজেপি প্রার্থী অজয় শ্যাম পেয়েছেন প্রায় ২২ শতাংশ ভোট। সকলকে রীতিমতো অবাক করে এক নির্দল প্রার্থী পেয়েছেন ২১ শতাংশের বেশি ভোট। অন্যদিকে বিদায়ী সিপিএম বিধায়ক রাকেশ সিংহের ঝুলিতে পড়েছে মাত্র ১৯ শতাংশের কাছাকাছি ভোট। অর্থাৎ পেছনে থাকার দৌড়ে বাম প্রার্থী ছাপিয়ে গেছে নির্দলকেও।

চলুন একবার চোখ বুলিয়ে নেই অঙ্কের হিসেবেও

  • অঙ্কের হিসাবে, কংগ্রেস প্রার্থী কুলদীপ পেয়েছেন ১৯,৪৪৭ টি ভোট।
  • দ্বিতীয় স্থান অধিকার করা বিজেপির অজয় পেয়েছেন ১৪,১৭৮ টি ভোট।
  • তৃতীয় স্থানে থাকা নির্দল প্রার্থী ইন্দু বর্মা পেয়েছেন ১৩,৮৪৮ ভোট।
  • এবং চতুর্থ স্থানে থাকা সিপিএম এর রাকেশ পেয়েছেন ১২,২১০ টি ভোট।

প্রসঙ্গত পূর্বের বিধানসভা নির্বাচন অর্থাৎ, ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিদের জোর টক্কর দিয়ে একাই ৪৩ শতাংশ ভোট পেয়ে জিতেছিলেন রাকেশ সিংহ। সেবার লড়াই হয়েছিল ত্রিমুখী। প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী পেয়েছিলেন ৩১ শতাংশ এবং কংগ্রেস প্রার্থী পেয়েছিলেন প্রায় ১৯ শতাংশ ভোট।

rakesh singha 2

তবে এবার যেন একেবারেই উলট পুরাণ। নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে সিপিএম নেত্রী বৃন্দা কারাত দাবি করেছিলেন, জয়ের ব্যবধান আরও বাড়বে অর্থাৎ আরও ভোট জয়লাভ করবেন রাকেশ। তবে বামের সেই সকল আসায় রীতিমতো জল ঢালার কাজ করল আজকের নির্বাচনী ফলাফল। কার্যতই হতাশ বামফ্রন্ট।

Related Articles