খেলাটাইমলাইন

স্বার্থ-সংঘাত ইস্যুতে এবার রাহুল দ্রাবিড়কে ডেকে পাঠালো বোর্ডের এথিক্স অফিসার।

ভারতীয় ক্রিকেট টিমের প্রাপ্তন অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়, এছাড়াও ভারতীয়দের মধ্যে উনি ছিলেন টেস্ট ক্রিকেটের অন্যতম সফল ব্যাটসম্যান। উনি মাঠে দাঁড়িয়ে একা হাতে অনেক টেস্ট ম্যাচ জিতিয়ে ছিলেন ভারতকে। এবার সেই শান্ত স্বভাবের রাহুল দ্রাবিড়ের বিরুদ্ধে উঠল স্বার্থ-সংঘাত ইস্যু। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এথিক্স অফিসার ডিকে জৈন রাহুল দ্রাবিড় কে এই ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আগামী ২৬ শে সেপ্টেম্বর ডেকে পাঠিয়েছেন। অর্থাৎ সেই দিনই নিজের বক্তব্য পেশ করবেন রাহুল দ্রাবিড়।

মধ্যপ্রদেশের ক্রিকেট সংস্থার আজীবন সদস্য সঞ্জীব গুপ্তা চলতি মাসের শুরুর দিকে রাহুল দ্রাবিড়ের বিরুদ্ধে স্বার্থ-সংঘাতের অভিযোগ আনেন। আর সেই ভিত্তিতেই বোর্ডের এথিক্স অফিসার রাহুল দ্রাবিড় কে নোটিশ পাঠিয়েছেন। আর এই খবর জানাজানি হওয়ার পরই রাহুল দ্রাবিড়ের পাশে দাঁড়িয়ে টুইট করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাহুল দ্রাবিড়ের প্রাপ্তন সতীর্থ সৌরভ গাঙ্গুলি এবং হরভজন সিং।

সঞ্জীব গুপ্তা রাহুল দ্রাবিড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন যে, রাহুল দ্রাবিড় বোর্ডের নিয়মের তোয়াক্কা না করে একসাথে দুটি পদে রয়েছেন। ভারতীয় বোর্ডের নিয়ম কোনো ব্যাক্তি একসাথে দুটি পদে থাকতে পারবেন না কিন্তু রাহুল দ্রাবিড় এনসিএ ডিরেক্টরের পাশাপাশি একই সাথে ভাইস চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন ইন্ডিয়া সিমেন্টের, আর এই ইন্ডিয়া সিমেন্ট হল আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজি চেন্নাই সুপার কিংসের মালিকানাধীন কোম্পানি।

সোমবার সংবাদ সংস্থা পিটিআই কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে বোর্ডের এথিক্স অফিসার জানান রাহুল দ্রাবিড়ের বিরুদ্ধে যে সমস্ত অভিযোগ গুলি উঠেছে সেই গুলি ক্ষতিয়ে দেখবার জন্যই রাহুল দ্রাবিড় কে আগামী ২৬ শে সেপ্টেম্বর ডেকে পাঠানো হয়েছে মুম্বাইয়ে। সেই সাথে বোর্ডের কর্মী মায়াঙ্ক পারিখের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগও ক্ষতিয়ে দেখা হবে বলে জানানো হয়েছে।

তবে বোর্ডের নোটিশ পাওয়ার পর থেকেই নিজেকে পুরোপুরি ভাবে ডিফেন্স করেছেন প্রাপ্তন ভারতীয় অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়। উনি বোর্ডকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন তার বিরুদ্ধে উঠা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন। উনি অনেক আগেই ইন্ডিয়া সিমেন্টের পদ থেকে লিভ নিয়েছেন। অন্যদিকে চেন্নাই সুপার কিংসের সাথেও তার কোনো রকম সম্পর্ক নেই।

Back to top button