টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

ফাঁকা বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিলেন শাশুড়ি! সুযোগ বুঝেই গয়না, টাকা হাতিয়ে চম্পট পুত্রবধূ

বাংলা হান্ট ডেস্ক: বাড়িতে ছিলেন শুধু শাশুড়ি। স্বামীও ছিলেন বাইরে। যার ফলে পুরো ঘরই ছিল ফাঁকা। এমতাবস্থায়, শাশুড়ির ঘুমের সুযোগ নিয়েই কাজ হাসিল করে নিলেন বৌমা। বাড়িতে থাকা গয়না এবং নগদ টাকা হাতিয়ে নিয়েই চম্পট দিলেন তিনি। এদিকে, এই চাঞ্চল্যকর ঘটনায় হতবাক সকলেই। গত সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার শান্তিপুর থানা এলাকার নৃসিংহপুরের নতুন গ্রাম এলাকায়।

এদিকে, এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত পুত্রবধূর উদ্দেশ্যে মঙ্গলবার একটি নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়েছে শাশুড়ির তরফে। পাশাপাশি, অভিযোগের ভিত্তিতে ওই তরুণীর খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, তরুণীর নাম হল শিল্পী মল্লিক। তাঁর বয়স ১৯ বছর। এই প্রসঙ্গে নতুনগ্রাম এলাকার বাসিন্দা তথা ওই তরুণীর শাশুড়ি সনকা মল্লিক জানিয়েছেন যে, সোমবার বিকেলের দিকে তিনি এবং শিল্পী ঘরে ঘুমোচ্ছিলেন।

কিন্তু, তারপরেই সনকা অভিযোগ করেন যে, ঘুম থেকে উঠে তিনি দেখতে পান তাঁর বৌমা ঘরে নেই। এদিকে, এই বিষয়টি তিনি পরিবারের বাকি সদস্যদেরও জানান। তারপরেই দেখা যায় যে, বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার সময় শিল্পী প্রায় তিন ভরি সোনা সহ নগদ ৩৫ হাজার টাকা নিয়ে কার্যত পালিয়ে গিয়েছেন।

এমতাবস্থায়, তৎক্ষণাৎ তাঁর খোঁজে নিকটবর্তী এলাকাগুলিতে সন্ধান চালান সনকা এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা। যদিও, এই ঘটনার পর পুরো একদিন কেটে গেলেও শিল্পীর কোনো খোঁজ মেলেনি। যার ফলে উপায় না পেয়ে মঙ্গলবার শান্তিপুর থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়।

পাশাপাশি, সনকা জানিয়েছেন, প্রায় বছর দু’য়েক আগে তাঁর ছেলের সাথে বিয়ে হয় শিল্পীর। এছাড়াও, বেশ কিছুদিন ধরে শিল্পী ফোনে কারও সঙ্গে প্রায়শই কথা বলতেন বলেও জানিয়েছেন সনকা। পাশাপাশি, তাঁর বৌমার চলে যাওয়ার প্রসঙ্গে তিনি জানান, “বৌমা আমার সঙ্গেই ঘুমোচ্ছিল। ঘুম থেকে উঠে দেখি ও নেই। ওকে তার পর থেকেই আর খুঁজে পাচ্ছি না।” এদিকে, এই পুরো ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ।

Related Articles

Back to top button