টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গকলকাতা

ক্রিকেট টিম কিনতে চেয়েছিলেন ‘ভুয়ো আইএস’ দেবাঞ্জন, ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে নয়া মোড়

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভুয়ো টিকাকেন্দ্র চালানো ভুয়ো আইএএস অফিসার দেবাঞ্জন দেবকে (Debanjan Deb) নিয়ে এখন তোলপাড় বঙ্গ রাজনীতি। তদন্তের স্বার্থে এবার সিট (sit) গঠন করল লালবাজার। আরও কোন  বৃহত্তর ষড়যন্ত্রের ইঙ্গিত পেয়েই, ডিসি-ডিডির নেতৃত্বে এই সিট গঠন করে লালাবাজার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, দেবাঞ্জনের নামে মোট ৩ টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। করোনা আবহে ভুয়ো ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্প চালিয়েছিলেন কসবা এবং নর্থ সিটি কলেজে। আবার, একটি সেকেন্ড ডিভিশন ক্রিকেট ক্লাব কেনারও পরিকল্পনা ছিল দেবাঞ্জনের- এমনটাই জানা গিয়েছে। পাশাপাশি তদন্তে নেমে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ জানতে পেরেছে, কোভিশিল্ড ইঞ্জেকশনের স্টিকার প্রিন্ট করিয়েছিল শিয়ালদহ থেকেই এবং তাঁর অফিসের কর্মীরা সেই স্টিকার লাগানোর কাজ করেছিল।

কসবায় ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে ধৃত দেবাঞ্জন দেবকে নিয়ে প্রতিদিনই নানান চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসছে। তাঁকে নিয়ে তদন্ত করা অফিসাররাও তাঁর কীর্তি দেখে-শুনে তাজ্জব হয়ে যাচ্ছে। কখনও আইএএস অফিসার, কখনও শিশু শিল্পী, আবার কখনও টিকা দেওয়া স্বাস্থ্য আধিকারিকের পর গুণধর দেবাঞ্জন দেবের আরও একটি গুণ সামনে এসেছে। তিনি একসময় গানও গাইতেন। ‘মন পাখি’ (Mon Pakhi) নামের ওই অ্যালবাম রিলিজের সময় জনপ্রিয়তা না পেলেও, এখন বেশ জনপ্রিয় হচ্ছে।

এমনকি জিজ্ঞাসাবাদে দেবাঞ্জন জানিয়েছেন, তাঁর বাবা চেয়েছিলেন ছেলে বড় আইএএস অফিসার হোক। বাবার স্বপ্ন পূরণ করতে ইউপিএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিলেও, পরীক্ষায় সে উত্তীর্ণ হতে পারেনি। কিন্তু বাবার থেকে সেই সত্য গোপন করে, ভুয়ো আইএএস হিসেবে যাত্রা শুরু করেন দেবাঞ্জন।

Related Articles

Back to top button