টাইমলাইনবিনোদনভিডিও

সবেতে তাড়াহুড়ো, মাত্র পাঁচ মাসের বাচ্চার কান ফুটো করিয়ে সমালোচিত দেবিনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: উপর্যুপরি খুশির খবর পেয়েছেন অভিনেত্রী দেবিনা বন্দ্যোপাধ্যায়। শারীরিক সমস্যার কারণে অনেক চেষ্টা চরিত্র করে প্রথম সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর ঈশ্বরের আশীর্বাদের মতো দ্বিতীয় সন্তানকে পাচ্ছেন দেবিনা গুরমীত। বাস্তবিকই আনন্দের বান ডেকেছে তারকা জুটির পরিবারে। কিন্তু কয়েকজন অভিযোগ করেছেন, দেবিনা গুরমীত নাকি বড্ড তাড়াহুড়ো করছেন সবকিছুতে।

মাত্র কয়েক মাসের ব্যবধানে দুই সন্তান। সমান ভাবে যত্ন করতে পারবেন তো দুজনকে? এমন প্রশ্নের মুখেও পড়েছেন দেবিনা। এবার প্রথম সন্তান লিয়ানার মাত্র পাঁচ মাস বয়সেই কান ফুটিয়ে দুল পরানোয় সমালোচনার মুখে পড়লেন অভিনেত্রী। এত ছোটবেলা বাচ্চার কান ফোটানোর কি খুব দরকার ছিল? প্রশ্ন তুলেছেন কয়েকজন।


সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন দেবিনা। ব্যথা না লাগিয়ে কীভাবে বাচ্চার কান ফুটিয়ে দুল পরানো যায় সেটা দেখিয়েছেন তিনি। ভিডিওতে দেখা যায়, বাবা গুরমীতের কোলে বসে ছোট্ট লিয়ানা। একজন সমস্ত সুরক্ষা বজায় রেখে কান ফুটিয়ে দুল পরিয়ে দিচ্ছেন লিয়ানাকে। ব্যথা টের পেয়ে যাতে না কাঁদে সে জন্য খেলনাও রাখা হয়েছে পুঁচকের সামনে।

কিন্তু ভিডিও দেখে কয়েকজন প্রশ্ন করেছেন, এত ছোট বাচ্চার কান ফোটানোর দরকারটাই বা কী ছিল? সাধারণত ৪-৫ বছর বয়স হলে তবেই ফোটানো হয় কান। সেখানে দেবিনা মাত্র পাঁচ মাসের শিশুর কান ফোটালেন কেন? অনেকের বক্তব্য, এটা একটা রীতি। আবার অনেকে কটাক্ষ করেছেন, দেবিনা বেশিই তাড়াহুড়ো করছেন। বাচ্চাটাকে নিজের মতো বাড়তেও দিচ্ছেন না।

ট্রোল অবশ্য নতুন নয় দেবিনার কাছে। গত ৪ ঠা এপ্রিল মা হন দেবিনা। অভিনব কায়দায় মা হওয়ার সুখবর দিয়েছিলেন গুরমীত দেবিনা। তার চার মাসের মধ্যেই দ্বিতীয় প্রেগনেন্সির সুখবর। একটু অপেক্ষা করা যেত না? প্রশ্নের মুখে পড়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন দেবিনা। তাঁর মতে এটা মিরাক্যল। তিনি কি গর্ভপাত করিয়ে ফেলতেন নাকি?

Related Articles