টাইমলাইনবিনোদন

পাকিস্তানি যোগ, পাঁচ কোটির বিনিময়ে জেএনইউতে CAA বিরোধী সভায় হাজিরা দিয়েছিলেন দীপিকা!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: জেএনইউ (jnu) বিক্ষোভে উপস্থিতির জন‍্য ৫ কোটি টাকা নিয়েছিলেন দীপিকা পাডুকোন (deepika padukone)। বুধবার এমনই অভিযোগ ট্রেন্ড হতে শুরু করেছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। চলতি বছরের শুরুর দিকে নিজের ছবি ‘ছপক’এর প্রমোশন চলাকালীন দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ‍্যালয়ে পড়ুয়াদের ধর্না প্রদর্শনে গিয়ে হাজির হন দীপিকা। তাদের পাশে দাঁড়িয়ে সাহস যোগান। এখন অভিযোগ উঠছে এই সমস্ত কিছুই ৫ কোটি টাকার বিনিময়ে করেছিলেন অভিনেত্রী। এক প্রাক্তন RAW অফিসার অভিযোগ করেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ঘনিষ্ঠ অনিল মুসারতের হয়েই জেএনইউয়ের CAA বিরোধী সভায় যোগ দিয়েছিলেন দীপিকা।
অপরদিকে রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবার এফআইআর দায়ের করেছে। অবসাদের কারনে অভিনেতার আত্মহত‍্যার ঘটনা তারা মানতে একেবারেই নারাজ। এই প্রসঙ্গে দীপিকাকে একহাত নিয়েছেন কঙ্গনা রানাওয়াত। তাঁর টিম সোশ‍্যাল মিডিয়ায় দীপিকাকে কটাক্ষ করে লিখেছেন, এবার অবসাদের ব‍্যবসা চালায় যারা তাদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিত। টুইটে দীপিকা ও রিয়া দুজনকেই ট‍্যাগ করা হয়েছে কঙ্গনার টিমের তরফে।


আসলে দীপিকা এর আগে নিজের অবসাদে ভোগার কথা জানিয়েছিলেন সোশ‍্যাল মিডিয়ায়। দীর্ঘদিন অবসাদে ভোগার পর নিজের মনের জোরেই তা কাটিয়ে উঠেছিলেন তিনি। অনুরাগীদের সঙ্গে এই প্রসঙ্গে খুল্লমখুলা কথা বলতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। তাই টুইটের মাধ‍্যমে কঙ্গনা যে দীপিকাকে মিথ‍্যে অবসাদে ভোগা নিয়ে কটাক্ষ করেছেন তা স্পষ্ট।

বুধবার দীপিকার টাকার বিনিময়ে জেএনইউ যাওয়ার বিষয়টা ট্রেন্ড হতে শুরু করলেই একের পর এক ট্রোল বানানো শুরু হয় অভিনেত্রীকে নিয়ে। অনেকেই সমর্থন করেন এই অভিযোগ। আবার কিছু মানুষের বক্তব‍্য, শুধুমাত্র নিজের ছবির প্রচারের জন‍্যই জেএনইউ গিয়েছিলেন দীপিকা। ওই ঘটনার কিছুদিন পরেই মুক্তি পায় তাঁর ছবি ‘ছপক’। সুতরাং তিনি যে নিজের ছবির প্রমোশন করার এমন সুবর্ণ সুযোগ ছাড়বেন না তা বলাই বাহুল‍্য। এমনটাই মত নেটিজেনের একাংশের। তবে এই প্রসঙ্গে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি দীপিকা পাডুকোনের তরফে।

Related Articles

Back to top button