টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

কালী মন্দিরের চুরি আটকালেন এক মুসলিম, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজির গড়ল দেগঙ্গা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজির গড়ল দেগঙ্গার (deganga) এক মুসলিম ব্যক্তি। তাঁকে ঘিরে চারিদিকে শোরগোল পড়ে গেছে। কালী মন্দিরে চুরি আটকিয়ে পুলিশের হাতে ধরিয়ে দেন এক অপরাধীকেও।

ঘটনাটি ঘটেছে, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে উত্তর চব্বিশ পরগণা দেগঙ্গা ব্লকের বেড়াচাঁপা-২ পঞ্চায়েতের গিলেবেড়িয়া এলাকায়। সেখানকার এক প্রাচীন কালী মন্দিরে ভোরের আলো ফোঁটার আগেই রাতের অন্ধকারেই তিন দুষ্কৃতী চুরির চেষ্টা করে। সেই সময় নমাজ আদায় করতে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন মন্দিরের ঠিক উল্টোদিকের বাড়ির বাসিন্দা আব্দুল লতিব মণ্ডল। তাঁর চোখে পড়ে গোটা ঘটনাটি।

কালী মন্দিরে থাকা প্রতিমার গায়ে থাকা লক্ষাধিক টাকার গয়না চুরি করার জন্য মন্দিরের তালা কাটছিল দুষ্কৃতীরা। এই দৃশ্য দেখে এক ভিন্ন ধর্মের হয়েও হিন্দু মন্দিরে উপস্থিত চোরদের ধরার জন্য আব্দুল ছুটে গেলেন বাড়িতে। ছেলে রবিউলকে ডেকে নিয়ে তিন চোরের সমস্ত কার্যকলাপ মোবাইল বন্দী করে খবর দেন পাড়া প্রতিবেশীদের।

গণ্ডগোলের আঁচ করতে পেরে দুই চোর চম্পট দিলেও একজন ধরা পড়ে তাদের জালে। ধৃতের নাম জয় বোদে। খানিকটা মারধর করে তারপর তারা খবর দেয় দেগঙ্গা থানায়। পুলিশ এসে অপরাধীকে ধরে নিয়ে যায়।

এই ঘটনার বিষয়ে আব্দুল জানান, ‘আমি নিজের ধর্মের মতই অন্যের ধর্মকেও সম্মান করি। অন্যের ধর্মের উপর কোনরকম আঘাত আমি সহ্য করতে পারি না। তাই নিজের জীবনের ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও, আমি চোরদের ধরতে ঝাঁপিয়ে পড়ি’। এই ঘটনার পর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করার জন্য মন্দির কমিটির সদস্যরা আব্দুল লতিব এবং তাঁর ছেলেকে ধন্যবাদ জানায়।

Back to top button