টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

করতে দিতেই হবে সরস্বতী পুজো! ছাত্রদের দাবিতে উত্তাল হাওড়ার ইংরেজি মাধ্যম স্কুল

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সরস্বতী পুজো করতে দিতেই হবে। এই দাবিতেই স্কুলের সামনে বিক্ষোভ দেখালেন ছাত্ররা। মঙ্গলবার হাওড়ায় (Howrah) এই ঘটনা ঘটে। ময়দান এলাকার একটি বেসরকারি স্কুলের এই ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। উত্তেজনা ছড়ায় গোটা এলাকা জুড়ে। ছাত্রদের অভিযোগ, সমস্ত ধর্মের অনুষ্ঠান পালনের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে স্কুলে, কিন্তু বাধা দেওয়া হচ্ছে শুধুমাত্র হিন্দুদের অনুষ্ঠানের সময়। এই ব্যাপারে আবেদন করেও স্কুল কর্তৃপক্ষের অনুমতি পায়নি ছাত্ররা।

জানা যাচ্ছে, মঙ্গলবার দুপুরে হাওড়া ময়দান এলাকার মারিয়াজ ডে স্কুলের সামনে তুমুল উত্তেজনা ছড়ায়। স্কুলের মূল গেটের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে ছাত্ররা। তাদের অভিযোগ, স্কুলে ২ বছর সরস্বতী পুজো হলেও এবার পুজো করার অনুমতি দিচ্ছে না স্কুল কর্তৃপক্ষ। পুজো করার অনুমতি চাইলেও ছাত্রদের পরীক্ষায় বসতে না দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে স্কুল থেকে। এলাকার সমস্ত স্কুলে সরস্বতী পুজো হলে ওই স্কুলে হবে না কেন? এটাই প্রশ্ন ছাত্রদের।

howrah 2

স্কুল পড়ুয়া আয়ূষ সাউ বলে ‘আমাদের স্কুলে সরস্বতী পুজো কেন হবে না? স্কুলে ইফতার পার্টি হলে সরস্বতী পুজোয় আপত্তি কোথায়? আমাদের স্কুলে সব অনুষ্ঠান হয়েছে। আগে দু’বছর সরস্বতী পুজোও হয়েছে। আমাদের অধিকার আছে স্কুলে পুজো করার। আমাদের স্কুলে এটা শেষ বছর, আমরা চাই স্কুলে পুজো হোক। আমাদের সাসেপন্ড করে দেওয়া, পরীক্ষায় না বসতে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এমনকী আমাদের অভিভাবকদেরও ফোন করা হচ্ছে। আমরা স্কুলে কোনও ভাঙচুর করছি না। আমরা শান্তিতে স্কুলে সরস্বতী পুজো চাই। আমাদের আর কোনও দাবি নেই।’

স্কুলের অপর এক পড়ুয়া জানায় ‘আমার দাদাও এই স্কুলে পড়ত। ২০১৯ ওঁদেরও অনেক লড়াই করে এখানে সরস্বতী পুজো করাতে হয়েছে। স্কুল সবসময়ই পুজোর বিরোধিতা করে। হাওড়া ৯০ শতাংশ স্কুলে সরস্বতী পুজো হয়। এখানেও আমরা পুজো চাই। স্কুল কর্তৃপক্ষ আমাদের প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছে। দরকার হলে স্কুলে বাইরে সরস্বতী পুজো হবে।’

Related Articles