fbpx
টাইমলাইনভারত

লকডাউন ৪.০ঃ কোন জোনে কিসে ছাড়? কোথায় এখনো জারি থাকবে নিষেধাজ্ঞা? দেখে নিন একনজরে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ লাগাতার বেড়েই চলেছে। এখনো পর্যন্ত গোটা দেশে ৯০ হাজার ৯২৭ জনের মধ্যে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গেছে আর ২ হাজার ৮৭২ জনের জনের মৃত্যু হয়েছে। এরই মধ্যে মধ্যে ১৭ মে পর্যন্ত চলা লকডাউন বাড়িয়ে ৩১ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এটা লকডাউনের চতুর্থ পর্যায়ের লকডাউন হতে চলেছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয়ের তরফ থেকে জারি করা গাইডলান্স গুলোতে এক নজরে দেখে নিন।

  • সন্ধ্যে সাতটা থেকে সকাল সাতটা পর্যন্ত জরুরী পরিষেবার ছাড়া সবার বাইরে বের হওয়া নিয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।
  • নতুন দিশা-নির্দেশ অনুযায়ী, রাজ্য আর কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল এবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রালয় দ্বারা জারি করা নির্দেশিকা অনুযায়ী কোভিড-১৯ রেড, অরেঞ্জ আর গ্রিন জোন নির্ধারিত করতে পারবে।

 

  • রেড আর অরেঞ্জ জোনের মধ্যে জেলা প্রশাসন/স্থানীয় শহর
  • মেট্রো রেল পরিষেবা বন্ধ থাকবে।
  • গোটা দেশে ৩১ মে পর্যন্ত স্কুল, কলেজ আর শিক্ষণীয় সংস্থান বন্ধ থাকবে। যদিও সরকার অনলাইন পড়াশোনায় মঞ্জুরি দিয়েছে।
  • হোটেল, রেস্তোরাঁ আর অন্যান্য আতিথেয়তা সেবা সম্পূর্ণ বাহবে বন্ধ থাকবে। এর মধ্যে স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, সরকারি অফিসার, অন্য শহরে ফেঁসে থাকা যাত্রী আর কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের জন্য পরিষেবায় ছাড় থাকবে।
  • রেলওয়ে স্টেশন, এয়ারপোর্ট, বাস ডিপোতে ক্যান্টিন খোলা হবে।

 

  • রেস্তোরাঁতে হোম ডেলিভারির জন্য খাবার বানানয় ছাড় দেওয়া হয়েছে।
  • সমস্ত সিনেমাহল। শপিং মল, জিম, সুইমিং পুল, মনোরঞ্জন পার্ক, থিয়েটার, বার, অডিটেরিয়াম, অ্যাসেম্বলি হল বন্ধ থাকবে।
  • স্পোর্টস কমপ্লেক্স আর স্টেডিয়াম খোলার জন য় ছাড় দেওয়া হয়েছে। তবে, এগুলোর মধ্যে দর্শক যেতে পারবে না।
  • দেশে ১৩ মে পর্যন্ত সমস্ত রকম সামাজিক, রাজনৈতিক, খেলা, এন্টারটেনমেন্ট, সাংস্কৃতিক, ধার্মিক এবং অন্যান্য কোন অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে।
  • সমস্ত ধার্মিক আর প্রার্থনা করা স্থান মানুষের জন্য বন্ধ থাকবে। ধার্মিক দিক থেকে একত্রিত হওয়া যাবে না।
  • রাজ্য সরকার অনুমোদিত অন্তঃরাজ্য যাত্রী বাহন আর বাস চালানো যাবে।
  • রাজ্যের মধ্যে বাস এবং অন্য যাত্রী বাহন চালানো নিয়ে রাজ্য আর কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল সিদ্ধান্ত নেবে।
  • ৬৫ বছরের বেশি বয়সী মানুষ, গর্ভবতী মহিলা, ১০ বছরের কম বয়সী বাচ্চাকে বাড়িতেই থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যদি খুব দরকারি কাজ হয়, তাহলেই বাইরে বের হওয়া যাবে।
  • মেডিকেল প্রোফেশনাল ডাক্তার, নার্স, প্যারা মেডিকেল স্টাফ, সাফাইকর্মী, অ্যাম্বুলেন্সকে রাজ্যের মধ্যে যাতায়াতের জন্য অনুমতি দেওয়া হবে।
  • মালবাহক বাহন, ট্রাক এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে যেতে পারবে।
  • কোন রাজ্যই মালবাহী বাহনকে আটকাতে পারবে না।
Back to top button
Close
Close