টাইমলাইনবিনোদন

‘বাবা যশ হোক বা অন‍্য কেউ’, নুসরতের সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে মুখ খুললেন সহকর্মী দেব

বাংলাহান্ট ডেস্ক: দুজনে একই ইন্ডাস্ট্রির সতীর্থ। পরবর্তীকালে রাজনীতির আঙিনাতেও একই দলের সদস‍্য হয়েছেন। সতীর্থ নুসরত জাহানের (nusrat jahan) এই কঠিন সময়ে তাই তাঁর পাশে দাঁড়ানোই উচিত বলে মনে করেছেন দেব (dev)। অভিনেত্রী সাংসদের সিঙ্গল মাদার হওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে ছেলে ঈশানের পিতৃপরিচয় নিয়ে মুখ খুলতে দেখা গিয়েছে তাঁকে।

সংবাদ মাধ‍্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে দেব জানালেন, নুসরত মা হওয়ার পর তাঁর সঙ্গে কথা হয়েছে। অভিনেত্রী নিজের পরিচয়েই আপাতত বড় করতে চান ছেলে ঈশানকে। এমনকি ছেলের বার্থ সার্টিফিকেটেও শুধু তাঁরই নাম রয়েছে। দেবের কথায়, “নুসরত নিশ্চয়ই ভাল কিছু ভেবেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমাদের মেনে নিতে হবে বিষয়টা। নুসরতের কোলে এখন ঈশান এসেছে। এবার ওঁকে নিজের শর্তে বাঁচতে দিন। সেটা যশ হোক বা অন‍্য কেউ, তাঁদের জীবনের সিদ্ধান্ত নিজেদের মুখে জানানোর সময় দিন।”


অপরদিকে যশও প্রথম বার ঈশানকে নিয়ে মুখ খুলেছেন সংবাদ মাধ‍্যমের কাছে। তিনি জানিয়েছেন, সারাক্ষণই ছোট্ট ঈশানের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন তিনি। এই নামটা নুসরত ও তিনি মিলেই ঠিক করেছেন। তাই আপাতত ওই নামেই ডাকা হচ্ছে খুদেকে। অবশ‍্য তার একটা ডাকনামও রয়েছে, অংশ।

কিছুদিন আগে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে নুসরত বলেছিলেন, ঈশানের বাবা কে সেটা বাবাই জানে। তবে পাশাপাশি তাঁর এটাও বক্তব‍্য ছিল তিনি আর যশ খুব সুন্দর সময় কাটাচ্ছেন। মাতৃত্ব চুটিয়ে উপভোগ করছেন। নুসরতকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, কবে দেখা যাবে ঈশানকে? উত্তরে অভিনেত্রী বললেন, “সেটা ঈশানের বাবা বলতে পারবে। আপাতত বাবাই ছেলেকে সবথেকে ভাল সামলাচ্ছে। করোনার কারণে কাউকেই ছেলের কাছে ঘেঁসতে দিচ্ছেন না তিনি। শুধু পরিবারের লোকেরা। ঈশানের বাবা চাইলেই দেখতে পাবেন ঈশানকে।”

Related Articles

Back to top button