টাইমলাইনবিনোদন

যার কেউ নেই তার মা আছে, মাদার্স ডের পরেই এক ভয়াবহ অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন দেবলীনা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: কথায় বলে, মা (mother) পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সম্পদ। মা ও সন্তানের নাড়ির যোগ যা ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়। সন্তান যেখানেই থাক মা সবসময় তার কল‍্যাণে প্রার্থনা করে। সন্তানের জন‍্য নিজের প্রাণের তোয়াক্কা না করেও বিপদের সম্মুখীন হতে পারে মানুষ। মুখ ফুটে কিছু না বললেও মা সন্তানের মনের কথা ঠিকই বুঝতে পারে। আর সেটা মর্মে মর্মে উপলব্ধি করেছেন অভিনেত্রী দেবলীনা কুমার (devlina kumar)।

মাদার্স ডের একদিন পর মাকে নিয়ে এক আবেগঘন পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী। সেই সঙ্গে জানিয়েছেন এক অদ্ভূত অভিজ্ঞতা যা থেকে প্রমাণিত হয় মা ও সন্তানের নাড়ির টান কতটা। সম্প্রতি দিদি নাম্বার ওয়ানে এসেছিলেন দেবলীনা। সঙ্গে এসেছিলেন তাঁর মা। মায়ের সঙ্গে সেদিনকার একটি ছবি পোস্ট করে একটি অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন তিনি।


দেবলীনা জানান, তাঁর ‘সাইনোফোবিয়া’ আছে অর্থাৎ কুকুর দেখলে প্রচণ্ড ভয় পান তিনি। এটা এতটাই মারাত্মক যে কোনো কুকুর তাঁর সামনে আসলে তিনি অজ্ঞানও হয়ে যান। এই কারণে কলকাতার রাস্তায় সাইকেল চালানোর সময় তিনি ওই রাস্তাগুলি এড়িয়ে চলেন যেগুলিতে কুকুরের সংখ‍্যা বেশি।

কিন্তু সেদিন হঠাৎ করেই এক ভয়ঙ্কর ঘটনার সম্মুখীন হন দেবলীনা। সেদিন সাইকেল চালাতে চালাতে অন‍্যদের থেকে কিছুটা পিছিয়ে পড়েছিলেন তিনি। এমন সময় দেবলীনা লক্ষ‍্য করেন একটি কুকুর তাঁর সাইকেলের পিছু নিয়েছে। প্রচণ্ড ভয়ে কেঁদে ফেলেন তিনি।

অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘সেই সময় আমি শুধু মা মা বলে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ করেই কুকুরটা পিছু নেওয়া বন্ধ করে দিল। তারপর আমি আবার স্বাভাবিক ভাবে সাইকেল চালাতে পারলাম। আর তখনি আমি বুঝতে পারলাম আমার মা হয়তো আমার থেকে দূরে রয়েছে কিন্তু আমার জন‍্য সবসময় প্রার্থনা করে চলেছে। আমি বুঝতে পারছিলাম মা আমাকে রক্ষা করেছে।’ পুনশ্চ দেবলীনা লিখেছেন, ‘যার কেউ নেই তার মা আছে’।

Related Articles

Back to top button