টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

৬,৬,৬,৬,৬! CPL-এ ডিওয়াল্ড ব্রেভিস বোঝালেন কেন তাকে বেবি এবি ডিভিলিয়ার্স বলা হয়

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: তাকে কেন বেবি ডিভিলিয়ার্স বলা হয় তা আরও একবার বোঝালেন দক্ষিণ আফ্রিকার তরুণ ২০ বছর বয়সী ক্রিকেটার ডিওয়াল্ড ব্রেভিস। অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স এরপর তিনি পাদপ্রদীপের আলোয় এসেছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকান কিংবদন্তি এবং এই প্রজন্মের অন্যতম সেরা ব‍্যাটার এবি ডিভিলিয়ার্সের সঙ্গে তার অদ্ভুত মিল পাওয়া গিয়েছিল ব্যাটিংয়ের। আজ তিনি আবার নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করলেন।

ক্রিকেটপ্রেমীরা প্রত্যেকেই জানেন যে গত পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ বা সিপিএল। আজ সেই লিগের ২৬ তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ‘ত্রিনিদাদ অ্যান্ড ট‍্যোবাগো নাইট রাইডার্স’ ও ‘সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস পেট্রিয়টস’। সেন্ট কিটস-এর দলের হয়ে এই মরশুমে খেলছেন ব্রেভিস।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করছিল সেন্ট কিটস। ১৭ তম ওভারের শেষ বলে ড্যারেন ব্র্যাভো আউট হওয়ার পর ব্যাট করতে নামেন তিনি। ১৮ তম ওভারে তিনি মাত্র একটি বল খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন এবং তাতে লেগ বাই থেকে দলকে এক রান উপহার দেন তিনি। তারপরে তিনি যা করলেন তা দেখে আশ্চর্য হয়ে যাবেন ক্রিকেট ভক্তরা।

১৯তম এবং শেষ ওভারে তিনি যথাক্রমে ৩ এবং ২টি বল খেলার সুযোগ পান। সেই প্রত্যেকটি বলকে তিনি বাউন্ডারি পার করে দেন। নিজে অপরাজিত থাকেন ৬ বলে ৩০ রান করে। লং অন, লং অফ, ডিপ এক্সট্রা কভার, মিড উইকেট কোনও জায়গাই বাদ রাখেননি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে আইপিএল খেলে যাওয়া এই তরুণ প্রোটিয়া ক্রিকেটার। এই অবিশ্বাস্য ইনিংস দেখার পর তার প্রশংসায় মেতেছে ক্রিকেট বিশ্ব।

সেন্ট কিটসের হয়ে এদিন সর্বোচ্চ রান করেন রাদারফোর্ড (৭৮)। ১৮ ওভারের শেষে সেন্ট কিটসের স্কোর ছিল ১১২। তাদের ইনিংসের শেষ দুই ওভারে ব্রেভিস এবং রাদারফোর্ডের দাপটে সেই রান গিয়ে দাঁড়ায় ১৬৩-তে। আনতারা করতে নেমে বেকায়দায় পোলার্ডের নাইট রাইডার্স। প্রতিবেদনটি লেখার সময় ৫ ওভার শেষে তাদের স্কোর ২ উইকেট হারিয়ে ২৭।

Related Articles