টাইমলাইনভাইরালআন্তর্জাতিক

অভূতপূর্ব আবিষ্কার! সুদূর চিলির আটাকামা মরুভূমিতে খোঁজ মিলল তৃণভোজী ডায়নোসরের

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বিশ্বের শুষ্কতম মরুভূমি চিলির (Chile) আটাকামায় খোঁজ মিলল তৃণভোজী ডায়নোসরের (Plant-Eating Dinosaur)। এটি একটি নতুন প্রজাতি অর্থাৎ টাইটানোসর প্রজাতির ডাইনোসর। জানা যায়, ওই মরুভুমিতে ১০০ বছর আগে ফুল এবং খেজুর গাছ ছিল। তবে দীর্ঘদিন সেখানে বৃষ্টি না হওয়ায় সেটি বিশ্বের শুষ্কতম মরুভূমিতে পরিনত হয়েছে।

ওই মরুভূমিতে এই যে নতুন প্রজাতির ডাইনোসরের (Dinosaur) হদিস মিলল তাতে হৈচৈ পড়ে গিয়েছে গোটা বিশ্বে। জানা যাচ্ছে এই ডাইনোসরের ওজন প্রায় ৩ হাজার কেজি। অর্থাৎ সুবিশাল আকৃতির এই ডাইনোসরের দৈর্ঘ্য প্রায় ৮ মিটার। যার একটি ছোট মাথা, লম্বা ঘাড়, লেজ ছিল এবং এটি অন্যদের তুলনায় অস্বাভাবিক বড়।

যা প্রদর্শিত হবে চিলির প্রাকৃতিক ইতিহাসের যাদুঘরে, তবে এখন করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধের কারণে বন্ধ হয়ে আছে। উল্লেখ্য, একটি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী এই নতুন প্রজাতির তৃণভোজী ডায়নোসরের প্রথম খোঁজ মিলেছিল ১৯৯০ সালে এবং ২০১৪ সালে আর্জেন্টিনায় আরেকটি টাইটানোসরের দেহাবশেষ পাওয়া গিয়েছিল। যার আনুমানিক দৈর্ঘ্য ৩৭ মিটারেরও বেশি ছিল, এটি এখনও পর্যন্ত আবিষ্কৃত বৃহত্তম ডাইনোসরগুলির মধ্যে একটি ছিল।

তবে চিলির আটাকামা মরুভূমিতে যে নতুন প্রজাতির ডাইনোসরের দেহাবশেষের খোঁজ মিলল, তাকে বলে ‘আটাকামা বোনস’  (Atacama Bones) অর্থাৎ আটাকামা মরুভূমিতে খুঁজে পাওয়া হাড়। উল্লেখ্য, অনেক আগে সেখানে একটি ভাষা প্রচলিত ছিল যার নাম কুনজা ভাষা। এখন যা বিলুপ্ত। উত্তর চিলি আটাকামা মরুভূমি এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে এই ভাষার চল ছিল। পরে অবশ্য এই ভাষার মানুষরা স্প্যানিশ ভাষা রপ্ত করে।

 

Related Articles

Back to top button