fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে হবে দুই দেশের, বললেন বিমান বসু

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ চীনের ঘটনা নিয়ে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছে। যদিও এটা প্রথম না, এর আগেও পুলওয়ামার মতো নরকীয় ঘটনা নিয়ে আমরা অনেক রাজনীতি দেখেছি। বিগত একমাস ধরে চলা চীন আর ভারতের উত্তেজনার মধ্যা গতকাল লাদাখ সীমান্ত উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। আর এরফলে দুই দেশের সেনারই ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। একদিকে, ভারতের এক কর্নেল সমেত তিন জওয়ান প্রাণ হারান, আরেকদিকে চীনের পাঁচ জওয়ানের মৃত্যু হয় এবং ১১ জন আহত হয় বলে খবর।

এবার এই ঘটনা নিয়ে কেন্দ্র সরকারকে আক্রমণ করে কংগ্রেসের নেতা রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা বলেন, এবছরে এপ্রিল মাস থেকে এখনো পর্যন্ত চীন তিনবার ভারতে অনুপ্রবেশ করেছে এই ঘটনা খুব উদ্বেগজনক। চীনের সেনাবাহিনী দ্বারা এই কাজের ফলে গোটা দেশ চিন্তিত এবং আতঙ্কিত, কিন্তু মোদী সরকার এই নিয়ে চুপ। এর আগে রাহুল গান্ধী দাবি করেছিলেন যে, চীন ভারতের ৬০ কিমি ভিতরে ঢুকে বসে আছে আর মোদী সরকার জনতার সামনে সত্য কথা তুলে ধরছে না।

এছাড়াও কংগ্রেসের নেতা অধীর চৌধুরী এই ঘটনা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেন, উনি বলেন বর্বর চীনের এই কাজ সহ্যনীয় নয়। এবার সময় এসেছে চীনকে যোগ্য জবাব দেওয়ার। উনি বলেন, আমরা বদলা চাই। পাশাপাশি নরেন্দ্র মোদীর নাম নিয়ে উনি বলেন, আপনার ৫৬ ইঞ্চি ছাতি দেখে মানুষ আপনাকে ভোট দিয়েছে এবার সেই ছাতি দেখিয়ে চীনের বিরুদ্ধে বদলা নিন।

আরেকদিকে বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান তথা প্রবীণ সিপিএম নেতা বিমান বসুও এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন। তিনি ভারত চীন উত্তেজনা নিয়ে মুখ খুলে বলেছেন, দুই দেশেরই উচিৎ আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করা।

Back to top button
Close