টাইমলাইনবিনোদন

রেহাই মিলল না রাণীমারও, সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত দিতিপ্রিয়া

বাংলাহান্ট ডেস্ক: দ্বিতীয় ঢেউয়ে করোনা (corona) ক্রমেই জাঁকিয়ে বসছে টেলিটাউনে। ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষা পেলেন না পর্দার রাণী রাসমণিও। করোনা আক্রান্ত হয়েছেন অভিনেত্রী দিতিপ্রিয়া রায় (ditipriya roy)। তাও আবার একা নন, সপরিবারে। মা বাবার সঙ্গে এখন হোম আইসোলেশনেই তিনি রয়েছেন বলে খবর।

স্টুডিও পাড়ায় এই খবর ছড়িয়ে পড়লেও সোশ‍্যাল মিডিয়ায় নিজে কিছুই জানাননি দিতিপ্রিয়া। এরপর সংবাদ মাধ‍্যমের তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে খবর নিশ্চিত করেন তিনি। তবে অভিনেত্রী জানান তাঁরা সপরিবারে করোনা আক্রান্ত হলেও বেশি চিন্তার কোনো কারণ নেই।

দিতিপ্রিয়া আরো জানান, প্রথমে তাঁর বাবাই করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। তারপরেই তাঁর মা আক্রান্ত হন। দু দিন জ্বর ছিল অভিনেত্রীর মায়ের। এরপরেই তিনজন করোনা পরীক্ষা করান। রিপোর্ট আসে পজিটিভ। নিজেদের হোম আইসোলেশনে রেখেছেন দিতিপ্রিয়া।

সর্দি কাশি হলে যেমন গলা খুশখুশ করে, মাথা ব‍্যথা হয় তেমনি উপসর্গ রয়েছে বলে জানান দিতিপ্রিয়া। তবে শরীর বেশ দুর্বল। চিকিৎসকের সমস্ত পরামর্শ মেনে চলছেন তাঁরা। তবে নিজেরা করোনা আক্রান্ত হলেও মেয়ের যত্নে কোনো খামতি রাখছেন না দিতিপ্রিয়ার বাবা মা। দ্রুত সুস্থ হয়ে আবার শুটিংয়ে ফেরার অপেক্ষায় রয়েছেন অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত, নববর্ষের প্রথম দিনেই একটি নতুন ছবিতে স্বাক্ষর করেছেন দিতিপ্রিয়া। পরিচালক পাভেলের একটি ছবিতে দেখা যেতে চলেছে দিতিপ্রিয়াকে। নববর্ষের প্রথম দিনেই নতুন পথচলা শুরু করলেন অভিনেত্রী।

বছরের প্রথম দিনেই নতুন সাজে হাজির হয়ে অনুরাগীদের চমকে দিয়েছিলেন দিতিপ্রিয়া। একটি ফ‍্যাশন ম‍্যাগাজিনের হয়ে করা ফটোশুটের ছবি অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করে নিয়েছেন তিনি। মায়ের কথা মতো ছোট থেকেই পয়লা বৈশাখের দিন নতুন জামা পরে একটু সাজগোজের রীতি বজায় রেখেছেন।

প্রত‍্যেক বছর এই দিনে বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে রেস্তোরাঁতে খেতেও যান বলে জানিয়েছেন দিতিপ্রিয়া। কিন্তু এবারে আর সেটা করেননি তিনি। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির দিকে তাকিয়েই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন দিতিপ্রিয়া।

তাঁর মুখের দিকে তাকিয়ে রয়েছে অনেক মানুষের পরিবার। তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে বন্ধ হয়ে যেতে পারে ওই মানুষ গুলোর রোজগার। তাই সব দিক বিবেচনা করেই এবারে আর রেস্তোরাঁতে যাননি বলে জানিয়েছেন দিতিপ্রিয়া।

Related Articles

Back to top button