টাইমলাইনভাইরালভারতভিডিও

পণের টাকার জন্য স্ত্রীকে দিল তালাক, স্যোশাল মিডিয়ায় আপত্তিজনক ভিডিও ভাইরাল করার হুমকি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ কথায় বলে স্বামী স্ত্রীর বন্ধন জন্ম-জন্মান্তরের বন্ধন। স্বামী স্ত্রী একসঙ্গে কতই না অন্তরঙ্গ মুহূর্ত কাটায়। কিন্তু এ আবার কেমন স্বামী, বাপেরবাড়ির থেকে স্ত্রী টাকা না আনতে চাওয়ায় স্যোশাল মিডিয়ায় তাঁর গোপন ছবি, ভিডিও ভাইরাল (Viral video) করে দিতে চাইছে!

পণের টাকার জন্য চলত অত্যাচার
কানপুর (kanpur) থেকে এমন এক লজ্জা জনক ঘটনার দৃষ্ঠান্ত উঠে এসেছে, যা স্বামী স্ত্রীর সম্পর্কে কলুষিত করেছে। বিয়ের পর থেকেই পণের টাকার জন্য আজকের দিনেও অত্যাচারিত হতে হত কানপুরের এক মহিলাকে। শেষে টাকা না পাওয়ার তাঁকে তিন তালাক দিয়ে স্যোশাল মিডিয়ায় আপত্তিকর ছবি, ভিডিও ভাইরাল করার হুমকি দিয়েছে স্বামী।

নির্যাতিতা মহিলা জানিয়েছেন
ঘটনাটি ঘটেছে কানপুরের বামবাগের ঈদগাহে। এই এলাকার বাসিন্দা এক মহিলা ডিআইজি-র কাছে তাঁর সমস্ত অত্যাচারের কথা জানিয়েছেন। ওই নির্যাতিতা মহিলা জানিয়েছেন, ২০১৪ সালে তাঁর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁর উপর অকথ্য অত্যাচার করত। বিয়ের পণের কারণে বিয়ের কয়েক মাস পর থেকেই শুরু হয় অমানুষিক অত্যাচার।

গোপন ছবি স্যোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল করার হুমকি দেয় স্বামী
ওই মহিলা আরও জানিয়েছেন, এই ভাবে চলতে চলতে গত ২২ শে মার্চ তাঁকে তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজন বাড়ির বাইরে বের করে স্থানীয়দের সামনেই বেধড়ক মারধর করে তাঁকে তিল তালাক দিয়ে সম্পর্ক ছেদ করে। কিন্তু এখানেই শেষ নয়, গত ১৫ ই সেপ্টেম্বর ওই মহিলার স্বামী তাঁকে হত্যার চেষ্টা করে। সর্বোপরি পুলিশকে কিছু জানালে স্যোশাল মিডিয়ায় ওই মহিলার আপত্তিজনক ছবি, ভিডিও ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দেয় তাঁর স্বামী।

অবশেষে শনিবার থানায় গিয়ে তাঁর সমস্ত অত্যাচারের কথা ডিআইজি-কে জানায় ওই নির্যাতিতা মহিলা। তাঁর সমস্ত কথা শুনে স্টেশন ইনচার্জ রামমূর্তি যাদব এই ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন।

Back to top button