টাইমলাইনভারত

ভ্যাকসিন নিতে দেবেন না স্ত্রীকে, আধার কার্ড নিয়ে গাছে উঠলেন স্বামী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনা (covid-19) থেকে রক্ষা পেতে ভ্যাকসিন (corona vaccine) গ্রহণই একমাত্র পথ। দেশজুড়ে কিছুসংখ্যক মানুষের ভ্যাকসিনেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেও, এখনও বাকি রয়েছে সিংহভাগ মানুষ। তবে বর্তমান সময়ে সকলেই টার্গেট করছেন, যত দ্রুত সম্ভব ভ্যাকসিন নেওয়া যায়।

তবে ভ্যাকসিন কেন্দ্রে টিকা নেওয়ার জন্য মানুষের লম্বা লাইন থেকে আবার অনেকে সংক্রমিত হওয়ার ভয়ও পাচ্ছেন। যে কারণে অনেকেই ভ্যাকসিন নিতেও যাচ্ছেন না। এরই মাঝে মধ্য প্রদেশের (madhya pradesh) রাজগড় জেলার পাটান কালা গ্রাম থেকে একটি অদ্ভূত ঘটনা সামনে এসেছে।

state government has announced when the second dose of Corona vaccine will be given

এই গ্রামের বাসিন্দা কানওয়ারলাল করোনা টিকা নেওয়ার থেকে শতহস্ত দূরে রয়েছেন। কানওয়ারলালকে যখন ভ্যাকসিন কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নেওয়ার কথা বলা হয়েছিল, সে সঠিক সময়ে ভ্যাকসিন কেন্দ্রে পৌঁছায়ইনি। এমনকি তাঁর বাড়ি গিয়ে অনুরোধ করলেও, যে যেতে অস্বীকার করে।

অন্যদিকে কানওয়ারলাল যেতে অরাজি হওয়ায় গ্রামবাসীরা তাঁর স্ত্রীকে বুঝিয়ে টিকাকেন্দ্রে নিয়ে যায়। কিন্তু স্ত্রী টিকাকেন্দ্রে গেলেও, তাঁর আধার কার্ড নিয়ে গ্রামের এক বড় গাছে উঠে পড়েন স্বামী কানওয়ারলাল। গ্রামবাসীদের অনুরোধেও কিছুতেই সে গাছ থেকে নামতে চায় না। শেষে যখন টিকাদান সম্পন্ন হয়ে যায়, তখন সে গাছ থেকে নেমে আসে।

এবিষয়ে কানওয়ারলালের দাবি, ভ্যাকসিন নিলে জ্বর, সর্দি, কাশি, গা ব্যাথা ইত্যাদি হয়। সেই কারণেই সে নিজেও ভ্যাকসিন নেয়নি এবং তাঁর স্ত্রীকেও ভ্যাকসিন নিতে দেয়নি। এর থেকেই বোঝা যায়, এখনও কিছু মানুষের মনে ভ্যাকসিন নিয়ে যে ভ্রান্ত ধারণার জন্ম হয়েছিল, তা রয়েই গেছে।

Related Articles

Back to top button