টাইমলাইনভারত

টেনিস বলের ভিতরে মাদক ভরে পাঠানো হত জেলে, কৌশল হার মানাবে বলিউডের চিত্রনাট্যকেও

সুশান্ত সিং রাজপুতের (sushant singh rajput) মৃত্যু রহস্যের কিনারা করতে গিয়ে মুম্বাই (mumbai) সহ মহারাষ্ট্রের একাধিক জায়গায় মাদকের রমরমার কথা জানা যায়। তারপরেই মাদক উদ্ধারে নেমে পড়ে পুলিশ ও এনসিবি। একাধিক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয় রাজ্যজুড়ে৷ কিন্তু এবার পুলিশের নাকের ডগা থেকে যেভাবে জেলের ভিতরে মাদক পাচারের ঘটনা উঠে আসল তা জেনে হতভম্ব জেলকর্তারা।

জেলের পাশে খেলার মাঠে শিশুরা ক্রিকেট খেলে টেনিস বল দিয়ে। সেখান থেকে মাঝে মধ্যেই জেলের পাঁচিল টপকে দু একটি উড়ে এসে পড়ে জেলের ভিতর। খুব স্বাভাবিক এই ঘটনায় রহস্যের কোনো গন্ধই কোনোদিন পান নি জেল কর্তারা। কিন্তু এর আড়ালেই মহারাষ্ট্রের কোলাপুরের কলম্বা জেলে চলছিল মাদক পাচারের অভিনব কৌশল, যা হার মানাবে বলিউডের চিত্রনাট্যকেও।

এই উড়ে আসা আপাত নিরীহ বলগুলির ভিতরেই ছিল টুইস্ট। হলিউড বা বলিউডের গল্প নয় বাস্তবেই এই বল গুলিতে ভরা থাকত মাদক। শিশুদের কাছ থেকে ব্যাট চেয়ে নিয়ে সেই বল জেলের ভিতরে পাঠিয়ে দিত পাচারকারীরা। ইতিমধ্যেই বৈভব কোঠারি,সন্দেশ দেশমুখ ও অমিত পায়গুড়ে নামের তিনজনকে এই কান্ডে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃতদের কাছ থেকে গাঁজা ও টেনিস বল উদ্ধার হয়েছে। জড়িত অন্যান্যদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত করতে গিয়ে উঠে এসেছিল বলিউডের ড্রাগ যোগ। কিছুদিন আগেই বলিপাড়ার বিখ্যাত ফিল্ম প্রোডিউসার ফিরোজ নাদিয়াওলার বাড়ি থেকে ড্রাগস উদ্ধার করে পুলিশ এনসিবি। জানা গেছে, শনিবার পশ্চিম মুম্বাই ও নবী মুম্বাইয়ের বিভিন্ন জায়গায় হানা দেয় এনসিবি অফিসাররা। সেখান থেকে ধৃত বিভিন্ন ড্রাগ ব্যাবসায়ীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ফিরোজের কথা জানতে পারেন অফিসাররা।

 

Back to top button