টাইমলাইনভারত

সীতা মাতার অভিশাপ; ত্রেতা যুগ থেকে আজ পর্যন্ত ৭০০ গ্রামের মাটিতে ফলে না এই শস্য

পুরোত্তম শ্রী রামচন্দ্রের (ram) স্ত্রী সীতা (sita) দেবীর অভিশাপে মনোরমা ও সরযু নদীর মধ্যবর্তী অঞ্চলে অবস্থিত বাস্তি জেলার হারড়াইয়া তহসিলের প্রায় ৭০০ গ্রামে ছোলা চাষ হয় না। কৃষিবিদদের মতে, এই অঞ্চলটি ছোলা চাষের জন্য উপযুক্ত কিন্তু তবুও এই অঞ্চলে ছোলা চাষ না হওয়ার পিছনে রয়েছে অভিশাপ। অভিশাপের কারণেই এই অঞ্চলের মানুষ ত্রেতাযুগ থেকে ছোলা চাষ করেন না। আসুন জেনে নি ঠিক কি কারনে অভিশাপ দিয়েছিলেন মাতা সীতা।

ভগবান শ্রী রাম জনকপুর থেকে মা সীতার সাথে অযোধ্যায় ফিরছিলেন। এই অঞ্চল দিয়ে ফেরার সময় তারা একটি ক্ষেতের ওপর দিয়ে ফিরছিলেন। কিছুদিন আগেই সেই অঞ্চলের ছোলা কাটা হয়েছে। ফলে ক্ষেতে তখনো ছোলা গাছের গোড়া ছিল। যা মাতা সীতার পায়ে ফুটে যায়।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মা সীতা অভিশাপ দিয়েছিলেন যে এই অঞ্চলে কেউ যদি ছোলা বপন করে তবে তা নষ্ট হয়ে যাবে। তারপর থেকে আজ পর্যন্ত এখানে ছোলা চাষ হয়নি। এই অঞ্চলের মানুষের বিশ্বাস যদি কেউ এই নিয়ম না মেনে ছোলা চাষ করে তবে তার ভয়ংকর ক্ষতি হয়।

তবে সীতার এই অভিশাপের পর এই অঞ্চলের মানুষেরা নাকি সীতার কাছে এই অভিশাপ ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছিল। তখন বিগলিতা হয়ে মা সীতা তাদের বলেছিলেন, একমাত্র ধনতেরাসের দিন রোপন করলেই ছোলা চাষে কোনো ক্ষতি হবে না। তবে থেকে আজ পর্যন্ত ধনতেরাসের দিন এই অঞ্চলের মানুষ অযোধ্যায় উপস্থিত হন। উপস্থিত জনতা সীতার কাছ থেকে ছোলা বোনার অনুমতি নিয়ে তবেই চাষ শুরু করেন। স্থানীয়রা বলেন, ত্রেতা যুগ থেকে আজ পর্যন্ত এই নিয়মের অন্যথা হয় নি।

 

 

 

 

Back to top button