টাইমলাইনফুটবলখেলা

লিগের লাস্টবয়ের কাছে ৬ গোলের মালা, একরাশ লজ্জা নিয়ে মরশুম শেষ করলো ইস্টবেঙ্গল

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ অনেক বাধা বিপত্তি কাটিয়ে এই বছর আইএসএলে নেমেছিল ইস্টবেঙ্গল। তারা ভেবেছিল প্রথম বছর আইএসএল থেকে ভালো কিছু দিতে পারবে সমর্থকদের। কিন্তু লীগের শুরু থেকেই সমর্থকদের হতাশ করে আসছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল। শনিবার সেই সমস্ত সীমা ছাড়িয়ে গেল ইস্টবেঙ্গল। লীগ টেবিলের একেবারে লাস্ট বয়ের কাছে হাফ ডজন গোল খেয়ে লজ্জার হার শিকার করতে হল ইস্টবেঙ্গলকে।

লীগ শুরু হওয়ার সময় থেকে একের পর এক ম্যাচ হেরে ইস্টবেঙ্গলের ঐতিহ্য নষ্ট করছিল ইস্টবেঙ্গলের ফুটবলাররা এবং কোচ রবি ফাউলার। ম্যাচ হেরে বারবার ভারতীয় ফুটবলারদের উপরেই দোষ চাপাচ্ছিল ইস্টবেঙ্গল কোচ রবি ফাউলার। শতবর্ষে লজ্জার রেকর্ড গড়লো ইস্ট বেঙ্গল। ইস্টবেঙ্গলের কোচ এবং ফুটবলার কেউই ক্লাবের সম্মান এবং সমর্থকদের আবেগের কথা হয়তো বুঝতেই পারেননি। আর তাই এই খারাপ পরিণতির পর কার্যত মুখ ঢাকলেন ইস্টবেঙ্গলের আবেগপ্রবণ সমর্থকরা।

খেলা শুরু হওয়ার 24 মিনিটের মধ্যেই পিলিংটনের গোলে এগিয়ে যায় ইস্টবেঙ্গল। তার কয়েক মিনিট পরেই অর্থাৎ 33 মিনিটের মাথায় গোল পরিশোধ করে দেয় গোয়ার জুলা। 37 মিনিটে ওড়িশা এফসির গোল রক্ষক রবির আত্মঘাতী গোলে ফের এগিয়ে যায় ইস্টবেঙ্গল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ইস্টবেঙ্গলকে আরও চেপে ধরে উড়িষ্যা। 49 মিনিট এবং 51 মিনিটে পরপর গোল করে ব্যবধান বাড়িয়ে নেই ওড়িশা এফসি। 60 মিনিটে ইস্টবেঙ্গলের হয়ে ব্যবধান কমান আমাদি। 66 এবং 67 মিনিটে পরপর গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক সম্পন্ন করেন জেরি। 69 মিনিটে ইস্টবেঙ্গলের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন মরিসিও। ইস্টবেঙ্গলের হয়ে 74 মিনিটে জেজে এবং 95 মিনিটে আমাদি গোল শোধ করেন। ফুলটাইম শেষে স্কোর থাকে ওড়িশা এফসি 6-5 ইস্টবেঙ্গল।

Back to top button