টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

বউবাজারে ভেঙে পড়ছে বাড়ি! ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো তৈরীর কাজে ১ বছরের বিলম্ব

বাংলা হান্ট ডেস্ক: ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ চলাকালীন বিপর্যয় বউবাজারে। একবছর পিছিয়ে গেল মেট্রো প্রকল্পের কাজ। কেএমআরসিএলের এমডি মানস সরকার জানালেন সম্প্রতি মেট্রোর সুরঙ্গ তৈরীর জেরে ঘটা দুর্ঘটনার কারণে কাজ শেষ করতে নির্ধারিত সময়ের থেকে ন্যূনতম ১ বছর বেশি সময় লাগবে।

বউ বাজার এলাকায় জোরকদমে চলছে মেট্রোরেলের কাজ যার জেরে একাধিক বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে ইতিমধ্যেই৷ শুধু তাই নয় একটি বাড়িও ভেঙে পড়েছে। ঘটনাচক্রে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়৷ কেন হচ্ছে এরকম? মেট্রোরেলের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ পর্যালোচনা করতে মঙ্গলবার মেট্রোকর্তাদের সঙ্গে বিশেষ আলোচনায় বসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পাশাপাশি নবান্নের এই বৈঠক শেষে মেট্রোর কাজের ১ বছরের বিলম্বের কথা জানিয়েছেন মানসবাবু। সূত্রের খবর, ২০২২-এর মাঝামাঝি সময়ে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে সাম্প্রতিক বিপর্যয়ের পর তা কবে শেষ করা যাবে তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় তৈরি হয়েছে মেট্রো আধিকারিকদের মধ্যে।

এই ঘটনার জেরে তৃণমূল সুপ্রিমো বউবাজারে মেট্রো প্রকল্পের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলির পরিস্থিতি বিশেষভাবে খতিয়ে দেখছেন৷ সোমবার বিকেলে বউবাজারে পৌঁছান মমতা৷ ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলির আধিকারিকদের সাথে কথাও বলেন তিনি৷ সদ‍্য ক্ষতি হওয়া পরিবারগুলির সমস্ত অভাব অভিযোগ শুনে শীঘ্রই এ সমস্যার সুরাহা করার কথা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

মমতা বলেন, ‘সঠিক সময়ে উদ্ধারকাজ শুরু হয়৷ দ্রুত উদ্ধারকাজ না-হলে আরও ক্ষতি হত৷ কাল মেট্রো কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে পুনর্বাসন নিয়ে কথা হবে৷ ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য একসঙ্গে কাজ করতে হবে৷ এই নিয়ে কোনও রাজনীতি নয়৷’

প্রসঙ্গত, শনিবার রাতে হঠাৎই বেশ কয়েকটি বাড়ি ভূমিকম্পের মতন কেঁপে ওঠে বউবাজার এলাকায়৷ এরপর থেকেই বেশ কয়েকটি বাড়িতে দেখা দিতে থাকে ফাটল৷ স্থানীয়রা অভিযোগ জানিয়েছেন, এলাকার বিভিন্ন বাড়িতে ফাটল ধরার একমাত্র কারণ ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ, যার জেরেই বর্তমানে এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে এলাকাবাসীদের৷

শুধুই ফাটল নয় খসে পড়ছে বাড়ির চাঙড়৷ হেলে পড়েছে একাধিক বাড়ি৷ যার ফলে বেশ কয়েকটি বাড়ি ভেঙে পড়ার আশঙ্কায় ভুগছেন স্থানীয়রা৷ ঘটনাচক্রে আতঙ্কিত হয়ে বাইরে বেরিয়ে আসেন বাড়ির বাসিন্দারা৷ পরে তাদেরকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। ইতিমধ্যেই সদ্য ফাটল ধরা বাড়ি গুলিকে, ব্যারিকেড করে রাখা হয়েছে যাতে দুর্ঘটনা এড়াতে কোনরকম অসুবিধা না হয়।

স্থানীয় বাসিন্দারা দাবি জানিয়েছেন, সুরঙ্গ তৈরীর কাজ বউবাজারের কাছে পৌঁছতেই পুরনো বাড়িগুলোতে অনুভূত হতে থাকে কম্পন। এখনও জল রয়েছে মেট্রোর টানেলে। জানা গেছে মুম্বাই থেকে বিশেষজ্ঞরা এসে টানেলের এই পরিস্থিতি খতিয়ে দেখবেন। সূত্রে খবর তারা এসপ্ল্যানেড দিয়ে ঢুকবেন এই টানেলে। শুধু তাই নয় ভূতত্ববিদদেরও সাহায্য নিচ্ছে মেট্রো। ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর টানেল খোঁড়ার কাজ শুরু হতে না হতেই বহু সমস্যার মুখে পড়েছে কলকাতা মেট্রো রেলওয়ে কর্পোরেশন লিমিটেড। বর্তমানে এই ঘটনার জেরে এক বছরের বিলম্ব দেখা যাবে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো রেলের কাজে।

Related Articles

Back to top button