টাইমলাইনবিনোদনবিশেষখেলাক্রিকেটIPL

চাষের জমিতে গ্রামবাসীদের সঙ্গে নিয়ে ভুয়ো IPL ম্যাচ, রাশিয়ার সাট্টাবাজদের থেকে টাকা নিয়ে প্রতারণা

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: নেই বিরাট কোহলি রোহিত শর্মা মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো তারকারা। নেই কোনও নামি অনামী ক্রিকেটার। তাও চলছে আইপিএল। এমনভাবেই ভিভো আইপিএল আয়োজন করে রাশিয়ান সাট্টাবাজদের বোকা বানালো গুজরাটের একটি ছোট গ্রামের কিছু মানুষ। গুজরাটের একটি ছোট গ্রামে সেই ভুয়া ইপিএলের লাইভ টেলিকাস্ট করে লক্ষ লক্ষ টাকা জালিয়াতি করা হয় রাশিয়ান সেই বুকিদের।

ইতিমধ্যেই এই জালিয়াতির জন্য গুজরাটের ওই গ্রাম থেকে চারজন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে মূল ছবিযুক্ত সে এখন রাশিয়ায় রয়েছে। গোটা র‍্যাকেটটি সেই নিয়ন্ত্রণ করত। ভাত্নগরের মলিপুর গ্রামের তারই নির্দেশ অনুযায়ী অভিযুক্তরা একটি মাঠ পরিষ্কার করে তার মধ্যে ক্রিকেট পিচ তৈরি করে। ফুটবল মাঠের চারপাশের হ্যালোজেন আলো লাগিয়ে স্টেডিয়ামের পরিবেশ তৈরি করার চেষ্টা করা হয়। সেই সঙ্গে বহু মূল্যবান সেটাপের ক্যামেরা এবং ক্যামেরাম্যানও ভাড়া নেওয়া হয়েছিল।

অভিযুক্তরা ওই গ্রাম থেকেই লোক ভাড়া করে এবং তাদেরকে গুজরাট টাইটানস চেন্নাই সুপার কিংস এবং মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এর জার্সি গায়ে চাপিয়ে মাঠে নামিয়ে দেয়। ম্যাচ পিছু তাদের ৪০০ টাকা দেওয়া হতো। খেলাটি আগে থেকেই ফিক্স করা থাকত কে কখন আউট হবে, কোন বলে ছয় মারা হবে, কোন বলে চার মারা হবে, সেই সব নির্দেশ আগেই দেওয়া থাকতো। মিরাট এর একজন লোক ধারাভাষ্য দেওয়ার জন্য হর্ষ ভোগলের কণ্ঠ নকল করতে, যাতে ব্যাপারটি আরও রিয়ালিস্টিক হয়।

ম্যাচের সরাসরি সম্প্রচার ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে রাশিয়ার বকরিদ এর কাছে করা হতো একটি নির্দিষ্ট টেলিগ্রাম চ্যানেলের মাধ্যমে বাজি ধরা হতো। মূল সংগঠক যারা এখনো খোঁজ পাওয়া যায়নি তার নাম শোয়েব দাউজা। ঘাটে এই পরিকল্পনার পুরোপুরি ভাবে রূপ দান করেন মহম্মদ আসিফ নামক এক ব্যক্তি। জানা গেছে যে এই অভিযুক্তরা রাশিয়ান বুকিদের কাছ থেকে তিন লাখ টাকা নেওয়ার সময় ধরা পড়েছিল।

Related Articles