টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

বিরাট কোহলির সঙ্গে হওয়া অন্যায়ের কর্মফল, নির্বাচকরা বরখাস্ত হতেই আনন্দে মাতলেন ভক্তরা

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের কাছে লজ্জাজনক হারের পর একটি বড় সিদ্ধান্ত নিল বিসিসিআই। বিসিসিআই তাই আজ শুক্রবার চেতন শর্মার নেতৃত্বে গঠন হওয়া সিনিয়র পুরুষ দলের জাতীয় নির্বাচক কমিটির প্রত্যেককে সরিয়ে দিয়েছে। টানা দুটি বিশ্বকাপে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর এটা প্রত্যাশিতই ছিল।

বিসিসিআই ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই জাতীয় পুরুষ দলের নতুন নির্বাচক হওয়ার জন্য আবেদনপত্র পোস্ট করেছে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফ থেকে জারি করা অফিসিয়াল বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, “ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (BCCI) জাতীয় নির্বাচকদের পদে দায়িত্ব নেওয়ার আবেদন করতে সেই ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছে যারা নির্ধারিত মানদণ্ড পূরণ করতে পারবেন।”

এই পদক্ষেপের পর খুশিতে মেতে উঠেছেন বিরাট কোহলির ভক্তরা। গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে হতাশ্রী পারফরম্যান্সের পর যখন কোহলি নিজে থেকে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট এর অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন, তার কিছুদিন পরেই এই নির্বাচক কমিটি দক্ষিণ আফ্রিকা শহরের দল ঘোষণা সময়ে বিরাট কোহলিকে না জানিয়েই তাকে না, জানি অধিনায়ক হিসেবে তাকে ওডিআই ফরম্যাট থেকে সরিয়ে রোহিত শর্মাকে সেই দায়িত্ব দিয়েছিলেন।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে উড়ে যাওয়ার আগে বিরাট কোহলির বক্তব্য এমন ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছিল যেখান থেকে মনে করা হয়েছিল যে তাকে সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখে নির্বাচকরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই ঘটনার এক বছরের মধ্যেই যখন ওই নির্বাচকমণ্ডলীই সম্পূর্ণরূপে বরখাস্ত কর তখন বিরাট কোহলি ভক্তরা গোটা ব্যাপারটিকে কর্মফল বলে আখ্যা দিচ্ছেন।

বিরাট কোহলি টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার পর রোহিত শর্মা যখন টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব নিয়েছিলেন তখন সকলেই অনেকটা উন্নতির আশা করেছিলেন। প্রাথমিকভাবে দেশ এবং বিদেশ মিলিয়ে দ্বিপাক্ষিক সিরিজগুলিতে সেই উন্নতি হচ্ছে বলেও মনে হয়েছিল অনেকের। কিন্তু এশিয়া কাপ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আবারও হতাশ করেছে ভারতীয় দল যার দায় নিয়ে নির্বাচনদের সরে যেতে হল এবার।

Related Articles