fbpx
আবহাওয়াকলকাতাভারত

নাগাল্যান্ডে ৩৬ বছর ধরে হয়নি বরফ বৃষ্টি, এবার বরফে ঢাকল পুরো রাজ্য।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকেই গোটা দেশ জুড়ে দাপিয়ে খেলছে শীত। মাঝে পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারনে একটু তাপমাত্রা বাড়লেও তারপর আবার স্বমহিমায় ফিরেছে শীত।  কাশ্মীরের ডাল লেকে জমেছে বরফ, রাজধানী দিল্লীর তাপমাত্রাও রেকর্ড গড়েছে, রাজস্থানের তাপমাত্রাও নেমেছিল ২ ডিগ্রিতে। শীতের থাবা থেকে রেহাই পায় নি উত্তর পূর্বের রাজ্যগুলোও।

ভারতের উত্তর-পূর্বের বেশ কয়েকটি রাজ্যে ইতিমধ্যেই জাঁকিয়ে বসেছে শীত। পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন অংশেও হয়েছে শৈত্য প্রবাহের পরিস্থিতি। ভাইরাল হয়েছিল পুরুলিয়ার বেগুনকোদরের খড়ের ওপর বরফের দৃশ্যও। এবার উত্তর পূর্ব ভারতের সেভেন সিস্টার বলে খ্যাত রাজ্যগুলির মধ্যে অন্যতম নাগাল্যান্ডের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে তুষারপাত ঘটল প্রায় ৩৬ বছর পরে।

অসমের গুয়াহাটি হাওয়া  অফিস জানিয়েছে , অরুণাচল প্রদেশের রাজধানী ইটানগরে সোমবার নূন্যতম তাপমাত্রা ছিল ২.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা এই মরশুমে উত্তর-পূর্বের শহরগুলির মধ্যে শীতলমতম । ঐ দিন মণিপুরের রাজধানী ইম্ফলের তাপমাত্রাও ছিল কাছাকাছি। অসমের গুয়াহাটি ও ইম্ফলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে 9 ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং 5 ডিগ্রি সেলসিয়াস।

নাগাল্যান্ডে, জুনেবোতো, কিফায়ার, ফেক এবং টুয়েনসগ-এই চারটি জেলার কয়েকটি অংশে ৩৬ বছর পর গত সপ্তাহে তুষারপাত হয়েছে। বরফে ঢাকা জায়গাগুলির ছবি এবং ভিডিওগুলি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। আবহাওয়া দফতরের জানাচ্ছে  যে,এই চারটি জেলা ও আশেপাশের অঞ্চলগুলি মঙ্গল ও বুধবার বেশিরভাগ ক্ষেত্রে শুষ্ক থাকবে। যদিও আগামী বৃহস্পতিবার হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা গোটা উত্তর ও পুর্ব ভারত জুড়েই।

Back to top button
Close
Close