টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারত

এনআরসি ইস্যু : ওটা তো অসমের ব্যাপার, বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বাংলা হান্ট ডেস্ক :  রাজ্যের সুযোগ পেলে এনআরসি চালু করা হবেই এমনটাই জানিয়েছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ শুধু দিলীপ ঘোষই নন লকেট চট্টোপাধ্যায়ও একই সুরে গিয়েছিলেন৷ এমনকি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি চালু করার ব্যাপারে সবুজ সংকেত দেখিয়েছিল৷ কিন্তু তাঁর জীবদ্দশায় কখনোই এআরসি বঙ্গে চালু হতে দেবেন না এমনটাই বলেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাই তো গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার মহানগরীর বুকে এনআরসির প্রতিবাদে পদযাত্রা করেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷

সিঁথির মোড় থেকে শ্যামবাজার অবধি বাংলায় এনআরসি চালু হতে দেব না এই স্লোগান তুলেছিলেন তিনি এমনকি শ্যামবাজারের একটি সভামঞ্চ তৈরি করেছিলেন৷ যেখান থেকে রাজ্যে কোনও মতেই এনআরসি চালু করা যাবে না এ ব্যাপারে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন মমতা৷ কিন্তু এ বার এনআরসি নিয়ে সুর নরম করলেন মুখ্যমন্ত্রী বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক শেষে এনআরসি ইস্যুতে উল্টো সুর গাইলেন তিনি৷ এ বার এনআরসি নিয়ে এক সময় সরব মমতা এ দিন বললেন ওটা তো অসমের ব্যাপার৷

মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যকে ঘিরে এখন জোর জল্পনা রাজ্য রাজনৈতিক মহলে৷ যে মুখ্যমন্ত্রী মাত্র কয়েকদিন আগে এনআরসি র বিরোধিতা করতে প্রাণপন চেষ্টা চালিয়েছিলেন সেই মুখ্যমন্ত্রী এ বার এনআরসি নিয়ে উল্টো সুর গাইলেন৷ এক সময় যিনি বিজেপিকে পাল্টা হুঁশিয়ারিতে বলেছিলেন দু কোটি তো পরের কথা আগে বাংলার 2জন মানুষের গায়ে হাত দিয়ে দেখাক৷

এমনকি বাংলায় এনআরসি হবে না এবং কখনও মাথা নত করবে না এই ভাষাতেও হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন কিন্তু এ বার সেই মমতা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এনআরসি নিয়ে কোনও আলোচনাই করেননি বলে জানালেন৷ তা হলে কি এ বার মোদী মমতা সম্পর্কে নয়া সমীকরণ তৈরি হতে চলেছে? অপেক্ষা করতে হবে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনই এমনটাই বলছেন বিশেষজ্ঞমহল৷

Back to top button