টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

মহরমে তাজিয়ার আঘাতে গুরুতর জখম এসআই

মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বের একটি উত্সব হল মহরম৷ এই উত্সবে ঢাল তরোয়াল নিয়ে মিছিলের মতো শোভাযাত্রা বের করে, সেই শোভাযাত্রা কখনও কোনও মসজিদ বা সৌধে গিয়ে শেষ হয়৷ মঙ্গলবার মহরম উপলক্ষে সেই তাজিয়ার তলোয়ারের আঘাতে গুরুতর জখম হলেন এক সাব ইন্সপেক্টর৷ এই ভয়াবহ ঘটনাটি ঘটেছে হুগলি জেলার চন্দননগরের৷ মঙ্গলবার মহরম উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অস্ত্র ও লাঠি খেলা প্রদর্শন চলছিল রাস্তায় রাস্তায়৷ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তেও একই চিত্র লক্ষ করা গিয়েছে৷ সরকারের নিষেধাজ্ঞাকে উপেক্ষা করেই মহরমের দিন রাস্তায় রাস্তায় অস্ত্র নিয়ে খেলা দেখে বেরিয়েছে৷

হুগলির চন্দনগরের সরষে পাড়া দিয়ে একটি মিছিল যাচ্ছিল মহরমের দিন৷ একটি সশস্ত্র বাহিনী নিজেদের মধ্যেই লাঠি ও অস্ত্র খেলায় মেতে উঠেছিলেন৷ কিন্তু হঠাত্ খেলা দেখানোর সময় একজনের হাত থেকে তলোয়ার ছিটকে চলে যায়৷ সেটি গিয়ে লাগেই চন্দননগর থানার কর্তব্যরত এসআই রাজীব পালের গায়ে৷ ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর চোট পান তিনি৷ মাথা ঘাড়সহ শরীরের একাধিক জায়গায় চোট লেগেছে তাঁর৷ ঘটনার পর ওই এসআইকে চন্দননগর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তিও করা হয়েছিল৷

শুধু মহরমের দিনই নয়, মহরমের আগের দিন অর্থাত্ সোমবার হুগলি ইমামবাড়ায় এই একই চিত্র দেখা গিয়েছে৷ দফায় দফায় দলের পর দল ব্যান্ডেল স্টেশন থেকেই ইমামবাড়া সৌধ অবধি লাঠি ও অস্ত্র নিয়ে মিছিল করে বেরিয়েছে কয়েক দল যুবক৷ অনেকের হাতেই কাটারির মতো বড় বড় অস্ত্র দেখা গিয়েছে৷ যদিও সে দিন রাস্তায় কোনও কর্তব্যরত পুলিশকে দেখা যায়নি৷ তবে সরকারি নিষেধাজ্ঞাকে উপেক্ষা করে কী ভাবে মহরমের দিন এখনও অবধি অস্ত্র খেলা দেখানো হয় সে বিষয়েও প্রশ্ন উঠছে৷ চন্দননগরের এসআই এর এই ঘটনার পর আতঙ্কিত সকলেই৷