টাইমলাইনভারতভিডিও

এই কারণে ২১ বছর যাবৎ দাড়ি কামাননি বৃদ্ধ, অবশেষে প্রতিজ্ঞাভঙ্গ করলেন তিনি! ভাইরাল ভিডিও

বাংলা হান্ট ডেস্ক: প্রত্যেক পুরুষের কাছেই দাড়ি কামানোর বিষয়টি একটি দৈনিক রুটিনের মধ্যে পড়ে। অনেকে আবার নির্দিষ্ট সময় অন্তর এই কাজটি করেন। মূলত, নিজেকে পরিচ্ছন্ন রাখতেই এই কাজ করা হয়। তবে, বর্তমান প্রতিবেদনে আজ আমরা এমন একজনের প্রসঙ্গ আপনাদের সামনে উপস্থাপিত করব যিনি দীর্ঘ ২১ বছর যাবৎ দাড়ি কামাননি। যদিও, তার পেছনে একটি কারণও ছিল। সর্বোপরি, সেই সংক্রান্ত একটি ভিডিও ভাইরালও (Viral Video) হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media)।

জানা গিয়েছে, ছত্তিশগড়ের (Chhattisgarh) মানেন্দ্রগড়ের বাসিন্দা রমাশঙ্কর গুপ্ত দাড়ি না কামানোর প্রতিজ্ঞা গ্রহণ করেছিলেন। জানা গিয়েছে, ওই প্রতিজ্ঞা অনুযায়ী, মানেন্দ্রগড়কে যতদিন না পর্যন্ত জেলার মর্যাদা দেওয়া হচ্ছে ততদিন তিনি দাড়ি কামাবেন না বলে সিদ্ধান্ত নেন।

এদিকে, ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল গত শুক্রবার মানেন্দ্রগড়-চিরমিরি-ভরতপুর জেলাকে ৩২ তম জেলা হিসাবে মর্যাদা দিয়েছেন। এদিকে মানেন্দ্রগড় জেলার মর্যাদা পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই রমাশঙ্কর তাঁর প্রতিজ্ঞা ভেঙে ফেলে দাড়ি কামিয়ে নেন। উল্লেখ্য যে, ১৯৯৮ সালে কোরিয়া জেলা গঠনের পর মানেন্দ্রগড়কে জেলা হিসেবে মর্যাদা দেওয়ার দাবি জানানো হয়। এমনকি, এই দাবির ভিত্তিতে আন্দোলনও করা হয়েছিল। যদিও, তাতে কোনো লাভ হয়নি।

গান্ধী চকে প্রতিজ্ঞা নেন রমাশঙ্কর: এমতাবস্থায়, ২০০০ সালে ছত্তিশগড় একটি নতুন রাজ্যে পরিণত হয়। সেই সময়ে আবারও মানেন্দ্রগড়কে একটি স্বতন্ত্র জেলা করার দাবি ওঠে। তখনই রমাশঙ্কর গান্ধী চকে প্রতিজ্ঞা নিয়েছিলেন যে যতদিন পর্যন্ত মানেন্দ্রগড় জেলার না মর্যাদা পাচ্ছে ততদিন দাড়ি কাটবেন না তিনি। যদিও, তাঁকে দীর্ঘ ২১ বছর অপেক্ষা করতে হয়।

এখন কামিয়ে ফেলেছেন দাড়ি: জানিয়ে রাখি যে, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল গত ১৫ অগাস্ট জানিয়েছিলেন যে, মানেন্দ্রগড়কে এবার একটি নতুন জেলা হিসেবে ঘোষণা করা হবে। ভূপেশ বাঘেলের ওই ঘোষণায় রমাশঙ্কর তাঁকে ধন্যবাদ জানান। এমতাবস্থায়, গত শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল মানেন্দ্রগড়-চিরমিরি-ভরতপুরকে একটি নতুন জেলার মর্যাদা দেন। সেই কারণে ২১ বছর পর রমাশঙ্কর সেই গান্ধী চকেই দাড়ি কামিয়ে ফেলেন।

Related Articles