টাইমলাইনখেলাক্রিকেটIPL

‘IPL-এর রোজগার থেকে গরিব মানুষকে সাহায্য করি’ নিন্দুকদের উদ্দেশ্যে বার্তা গম্ভীরের

 বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: পূর্ব দিল্লির একজন সাংসদ হয়েও কেন আইপিএলে কাজ করেন গম্ভীর? কেনই বা অন্যান্য সময় তাকে বিভিন্ন ম্যাচে ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায় দেখা যায়? বেশ কয়েকদিন ধরে নিন্দুকদের তরফ থেকে গৌতম গম্ভীরকে এইসব প্রশ্নবাণে জর্জরিত করা হচ্ছিল। এবার নিন্দুকদের উদ্দেশ্যে মুখ খুললেন গম্ভীর। তিনি জানিয়েছেন যে প্রয়োজনে অনেক গরিব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ান তিনি বিভিন্ন সময়ে এবং যেহেতু তার বাড়িতে টাকার গাছ নেই তাই আইপিএলে কাজ করে রোজগার করেই মানুষের সেবা করে থাকেন তিনি।

যারা এইসব ব্যাপারে কিছুটা খোঁজখবর রেখে রাখেন তারা সকলেই জানেন যে গম্ভীরের রোজগারের বেশ বড় একটা অংশর উৎস হলো এই ক্রিকেট ধারাভাষ্যকারের কাজ এবং তার পাশাপাশি আইপিএলের (বর্তমানে LSG) দলগুলির সাথে যুক্ত থাকার ফলে রোজগার থেকে। রাজনীতিতে আশার পর থেকে এই নিয়ে বহুবার কটাক্ষও শুনতে হয়েছে তাঁকে। জনপ্রতিনিধি হয়েও মানুষের কাজ না করে কেন আইপিএলে ব্যস্ত থাকেন গম্ভীর এই প্রশ্ন করে বিরোধী দলের অনেকেই তাকে ভণ্ড আখ্যাও দিয়েছিল।

এর জবাবে গম্ভীর আজ বললেন,”আমি কাজটা করি বলেই ৫ হাজার মানুষের মুখে রোজ ভাত তুলে দিতে পারি। আমি আইপিএল এবং কমেন্ট্রির কাজ করে যে রোজগার করি তা নিয়ে আমার কোনও লজ্জা নেই। প্রায় ৫ হাজার মানুষ আমার ভরসায় আছেন যাদের খাওয়াতে আমার মাসে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা খরচ হয়। অর্থাৎ গোটা বছরে ২ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা। এছাড়াও আমি ২৫ লক্ষ টাকা খরচ করে একটি লাইব্রেরিও তৈরি করেছি। যে কেউ গিয়ে দেখে আসতে পারেন। পুরোটাই আমার নিজের খরচায়।”

অনেকেই হয়তো জানেন না যে সাংসদ গম্ভীর নিজের বাসস্থানের আশেপাশে একটি ‘জনতার রান্নাঘর’ চালান। ওই রান্নাঘর থেকে ১ টাকার বিনিময়ে যে কোনও মানুষ খাবার জোগাড় করতে পারেন। গম্ভীরের দাবি, ওই জনতার রান্নাঘরের জন্য তিনি সাংসদ তহবিলের টাকা ব্যবহার করেন না যাতে তা অন্য জনকল্যাণকর কাজে লাগানো যায়।

Related Articles