পশ্চিমবঙ্গ

নন্দীগ্রাম ‘চ্যালেঞ্জ’ জেতা শুভেন্দুকেই বিরোধী দলনেতার পদে বেছে নিতে পারে রাজ্য বিজেপি

বাংলা হান্ট ডেস্ক:  সম্মানের লড়াইয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারিয়ে নন্দীগ্রামে জয় পেয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। যে কারণে বিধানসভায় বিরোধী দলনেতা হিসেবে শুভেন্দুকে বেছে নিতে পারে রাজ্য বিজেপি।

বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, মন্ত্রী হওয়ার অভিজ্ঞতা থাকায় মুকুল রায় ও শুভেন্দু অধিকারীকেই বিরোধী দলনেতা পদে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। শুভেন্দুর নামও এই পদের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর। বুধবার সন্ধেয় সেই নাম ঘোষণা হতে পারে।

এবারের নির্বাচনের শুরু থেকেই লড়াইয়ের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল নন্দীগ্রাম। ভোটের মুখে তৃণমূল চেড়ে বিজেপি-তে যোগ দিয়ে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। এরপরই মাস্টারস্ট্রোক হিসেবে মমতা নন্দীগ্রামের মাটিতে দাঁড়িয়ে ঘোষণা করে দেন, তিনি নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে লড়বেন। এরপরই মমতাকে ৫০ হাজারের বেশি ভোটে হারানোর চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিলেন শুভেন্দু।

একসময় মমতার পাশে থেকেই লড়াই করেছিলেন এই শুভেন্দু অধিকারী। নন্দীগ্রামের আন্দোলনের অন্যতম হোতা ছিলেন তিনি। আর মমতার তৃণমূল নাড়ি নক্ষত্র চেনা সেই নেতাকেই নন্দীগ্রামে মমতার প্রতিপক্ষ হিসেবে ময়দানে নামায় বিজেপি। লড়াই কঠিন হলেও নন্দীগ্রামের পুরনো জমি থেকে গেল শুভেন্দুর হাতেই। আর এবার বিধানসভায় মমতার বিরোধিতায় প্রধান মুখ হিসেবে উঠে আসছে শুভেন্দু অধিকারীর নাম।

নন্দীগ্রামে জয়ী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, এই খবর প্রথমে সামনে আসে। কিছুক্ষণ বাদেই জানা যায়, নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর কাছে পরাজিত হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপরই নন্দীগ্রামে নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলেছেন মমতা। এই নিয়ে এদিন সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূলনেত্রী বলেছেন, ‘কারচুপি হয়েছে, আমরা কোর্টে যাব।’

 

 

Back to top button