টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

স্কুল শিক্ষক হলে চলবে না! পাত্র চাই-র অদ্ভুত বিজ্ঞাপন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ খবরের কাগজে হোক কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া, যেকোনো জায়গাতেই পাত্রের বিজ্ঞাপনে প্রধান যে যোগ্যতাটি নজরে পড়ে, সেটি হল ‘সরকারি চাকরি’। এর ওপর যদি শিক্ষকতার চাকরি হয়, তাহলে তো কোনো কথাই নেই। বর্তমানে একটি ‘পাত্র চাই’ বিজ্ঞাপন ঘিরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্যের সর্বত্র, যেখানে পাত্রীর পরিবার দ্বারা লেখা হয়েছে ‘স্কুল শিক্ষক ব্যতীত’। অর্থাৎ স্বামী হিসেবে স্কুলের শিক্ষকদের কোনভাবেই বিয়ে করতে চান না পাত্রী। তবে তার এরকম অদ্ভুত দাবির কারণ কি? এ নিয়ে শোরগোল পড়েছে সর্বত্র।

উল্লেখ্য, ভাইরাল বিজ্ঞাপনটিতে পাত্রীটি ধুপগুড়িতে সরকারি চাকরি করেন। উত্তর দিনাজপুরে বাড়িও রয়েছে 32 বছরের ওই যুবতীর। বর্তমানে তিনি তাঁর পছন্দের পাত্র খুঁজে চলেছেন  অবশ্য দাবি একটি এবং তা হলো, ‘স্কুল শিক্ষক ব্যতীত’। এক্ষেত্রে অবশ্য তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি।

অবশ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, সাম্প্রতিককালে যেভাবে রাজ্যে স্কুল সার্ভিস কমিশন এবং প্রাইমারি টেট দুর্নীতি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে, সেই কারণেই এহেন বিজ্ঞাপন দেওয়া হতে পারে। প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক সময়ে স্কুল সার্ভিস কমিশন দুর্নীতিতে শাসক দলের একাধিক নেতাকে সিবিআই জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হয়। অপরদিকে, আবার বর্তমান শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়েকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। প্রাইমারি টেট দুর্নীতিতেও অসংখ্য শিক্ষকদের চাকরি থেকে বরখাস্ত করে আদালত। শিক্ষক নিয়োগে যখন এই দুর্নীতি, তখন এহেন বিজ্ঞাপন নেট মাধ্যমে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

বহু সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা এই ব্যাপারটিকে মজার ছলে নিয়েছেন। এক ব্যক্তি লিখেছেন, “অতীতে শিক্ষকরা পাত্রের তালিকায় সবার প্রথমে থাকত। কিন্তু বর্তমানে তাদেরকে বাদ দিয়ে চলেছে পাত্রীরা। এককথায় খেলা ঘুরে গিয়েছে।”

Related Articles

Back to top button