খেলাহোম পেজ

Exclusive ২৭বছরে মিউজিয়াম হলো না কেন , পদক চুরি গোষ্ঠপালের

উদয়ন বিশ্বাস, বাংলাHunt :

মোহনবাগান ক্লাবের তরফ থেকে গোষ্ঠ পরিবারের হাতে ফেরত দেওয়া হলো না পুরস্কার। তারমধ্যে যে গুলো রয়েছে “পদ্মশ্রী” নেই , আটটা রৌপ্য পদক নেই , চারটে স্মারক নেই , একটা রৌপ্য মানপোত্রনেই ,তালগাছ ও বাঘ মার্কা মোহনবাগান ক্লাবের প্রথম স্মারক নেই , একটা স্মরণিকা নেই ,জীবনীপঞ্জি নেই ।
মোহনবাগানীরা দাবী তুললেন এই পুরস্কার গুলো কোথায় গেল? প্রশ্ন মোহনবাগান পরিবারের এক অংশের

১৯৯২ সালে গোষ্ঠ পালের শেষ ইচ্ছানুসারে তাঁর পুত্র শ্রী নিরাংশু পাল মহাশয় ক্লাবকে মিউজিয়াম বানানোর উদ্দেশ্যে সব পুরস্কার দান করেছিলেন । ২৭ বছরে কোনো মিউজিয়াম তো হয়নি ,বরং যখন গোষ্ঠ পালের পরিবার সেই পুরস্কার গুলো ফেরত চাইলে ও দিতে পারেনি কতৃপক্ষ। রাজ্য সরকার কে দিয়ে অন্তত একটা মিউজিয়ামে রাখতে জনসাধারণের দর্শনের জন্য ,অনেক পুরস্কার ই ফেরত দেওয়া হলো না ক্লাবের তরফ থেকে নাকি সেগুলো পাওয়া যাচ্ছেনা বলে দাবী করা হয়। ১কোথায় গেল পদ্মশ্রী পদক ? কোথায় গেল বাকী অনেক দুষ্প্রাপ্য পুরস্কার ?
মোহনবাগান জনতা গণদাবী তুলছে কেন এখনও একটিও মিউজিয়াম তৈরি হলো না। এর দায়দায়িত্ব কি রাজ্য সরকার নেবে না দাবী তুলছে গোষ্ঠ পালের পরিবার।

এই ব্যাপারে গোষ্ঠপালের সুযোগ্য পুত্র নীলাংশু পাল বলেন আমার বাবাকে যথাযথ সম্মান দেওয়া হয়নি এবং যে পদক পেয়েছিল সেই পদক কে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানান। ২৭বছর ধরে কেন মিউজিয়াম এর কাজে গেলো না সে নিয়োগ প্রশ্ন তুলেছে।

এই ব্যাপারে কলকাতা পৌরসংস্থার ৪নম্বর ওয়ার্ডের পৌরপিতা গৌতম হালদারকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন আমরা সবসময় গোষ্ঠ পালের পরিবারের সাথে আছি এবং পাইকপাড়াতে ওনার বাড়ির সামনে পূর্ণাঙ্গ একটি গোষ্ঠ পালের মূর্তি স্থাপন করেছে কিন্তু গোষ্ঠ পালের পদক কে বা কারা চুরি করল তা সঠিক ভাবে তদন্ত হওয়ার দরকার। এখন দেখার বিশয় কবে শুরু হয় মিউজিয়াম তৈরির কাজ। সেই দিকে তাকিয়ে ফুটবল প্রমী মানুষ।

Leave a Reply

Close
Close