টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

তাঁর কথাতেই চালকের বিরুদ্ধে দায়ের অভিযোগ, ২৪ ঘন্টার মধ্যে আবারও বিস্ফোরক বিকানের এক্সপ্রেসের যাত্রী

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গে গৌহাটি বিকানের এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার পর মাঝখানে পেরিয়েছে মাত্র কয়েকটা দিন। এরই মধ্যে আবারও বিস্ফোরক দাবিতে মুখ খুললেন ওই ট্রেনের যাত্রী তথা অভিযোগকারী উত্তম রায়।দুর্ঘটনাগ্রস্ত ট্রেনের যাত্রী উত্তম রায়ের অভিযোগের ভিত্তিতেই ট্রেনের চালকের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা। কিন্তু এবার পুলিশের বিরুদ্ধেই বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন ওই ব্যক্তি।

তাঁর অভিযোগ, পুলিশ তাঁর কোনো কথা না শুনেই নিজেদের মনগড়া অভিগ লিখে নিয়েছে।উত্তম বাবু জানান, ‘দূর্ঘটনাগ্রস্ত ট্রেনটিতে সফর করছিলাম আমরা। ওই ট্রেন থেকে চুরি যায় আমার ৭০ হাজার টাকা। ছেলের মাথা ফেটে যায়। আমায় যখন বলা হয় কোনো অভিযোগ থাকলে জানাতে তখন আশা করেছিলাম আমার টাকাটা ফেরত পাওয়া যাবে বা পারতপক্ষে ছেলেটার চিকিৎসা হবে। কিন্তু সেসবের বদলে আমাকে থানায় নিয়ে গিয়ে সাদা কাগজে সই করায় পুলিশ। তারপর নিজেদের মত যা খুশি তাই লিখে নেয় অভিযোগ পত্রে’।

যদিও রেল মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণ ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন যান্ত্রিক ত্রুটির জন্যই এই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।এই ঘটনার প্রেক্ষিতে ওই ট্রেনের চালক প্রদীপ বাবু জানিয়েছেন, ‘ বিকেল ৪ঃ৫২ মিনিট নাগাদ একটা বিরাট ঝাঁকুনি অনুভব করে এমার্জেন্সি ব্রেক কষতে বাধ্য হয়। পিছনে কী হচ্ছে আমার পক্ষে জানা অসম্ভব ছিল। কিন্তু  যখন দেখি ততক্ষণে পিছনের দিকের ৬ টি চাকা লাইনচ্যুত হয়েছে।’

ট্র‍্যাকশন মোটর খোলা ছিল কি না তা তাঁর পক্ষে জানা অসম্ভব ছিল এমনটাও জানিয়েছেন তিনি।উত্তম রায়ের এহেন বিস্ফোরক দাবির পর কার্যতই চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে রাজ্যজুড়ে।প্রসঙ্গত, গৌহাটি বিকানের এক্সপ্রেস দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের।আহত ৪৫ জন। দুর্ঘটনাগ্রস্ত লাইন পরিষ্কার করে ইতিমধ্যেই ট্রেন চলাচল শুরু করা হয়েছে সেখানে।

Related Articles

Back to top button