fbpx
খেলাটাইমলাইন

বড় খবর! সাকিবের নির্বাসনের পিছনে রয়েছে ভারতীয় বুকি দীপক আগারওয়ালের হাত।

আইসিসির কাছে ম্যাচ-ফিক্সিং সংক্রান্ত তথ্য গোপন করার জন্য আইসিসি দুবছরের জন্য নির্বাসিত করেছে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে। আইসিসি প্রথমে দুই বছরের জন্য নির্বাসিত করেছিল ওয়ানডেতে বিশ্বের নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার সাকিব কে, কিন্তু সাকিব নিজের দোষ স্বীকার করে নেওয়ায় তার শাস্তি কমিয়ে এই মুহূর্তে এক বছর করা হয়েছে। অর্থাৎ 2020 সালে ফের ক্রিকেট মাঠে নামতে পারবেন সাকিব। আর বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে সাকিবের এই শাস্তির নেপথ্যে রয়েছে এক ভারতীয় বুকির হাত।

ভারতীয় জুয়াড়ি দীপক আগারওয়ালের নাম এই মুহূর্তে জড়িয়ে গিয়েছে সাকিব আল হাসানের নির্বাসনের ঘটনার সাথে। জানা গিয়েছে 2017 সালে এই ভারতীয় বুকের সাথে হোয়াটসঅ্যাপে ম্যাচ ফিক্সিং সংক্রান্ত বেশ কিছু কথাবার্তা হয় সাকিবের। তবে সেই কথাবার্তার ব্যাপারে আইসিসি কিংবা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড কাউকেই কিছু জানায়নি সাকিব আল হাসান, আর এই তথ্য গোপন করে যাওয়ার জন্যই কার্যত সাকিবকে 2 বছরের জন্য নির্বাচিত হতে হল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে।

বাংলাদেশ লিগ চলাকালীন সাকিবের এক পরিচিত ব্যাক্তি সাকিবের নাম্বার দিয়েছিলেন দীপক আগারওয়াল কে। এরফলে দীপক এবং সাকিবের মধ্যে ফের কথাবার্তা শুরু হয় 2018 সালে।

দীপক 2018 সালে ত্রিদেশীয় সিরিজ চলাকালীন ম্যাচ ফিক্সিং এর প্রস্তাব দিয়েছিল সাকিবকে পরে আইপিএল চলাকালীন ফের সাকিবকে ম্যাচ ফিক্সিং করার জন্য  প্রস্তাব দিয়েছিল এই দীপকই। কিন্তু দুবারই তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে দেয় সাকিব কিন্তু প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেও সেই প্রস্তাবের ব্যাপারে আইসিসি কে কিছুই জানায় নি সাকিব। আর তাই আইসিসির কাছে ম্যাচ ফিক্সিং সংক্রান্ত তথ্য গোপন করার জন্য সাকিবকে এক বছর নির্বাসিত করল আইসিসি।

Leave a Reply

Close
Close