টাইমলাইনভারত

দুচোখে ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন, সংসারে অভাব! পড়াশোনার খরচ যোগাতে ১০০ দিনের কাজে রোজি

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ অভাবের সংসারেও ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন ওড়িশার (Odisha) পুরীর (Puri) বাসিন্দা রোজি বেহরা। অগত্যা নিজের পড়াশোনার খরচ যোগাতে যোগ দিলেন ১০০ দিনের কাজে। রোজি বেহরার এই সংগ্রামের কথা প্রকাশ‍্যে আসতেই, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন স্থানীয় বিডিও।

দুচোখে ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন দেখে ২০১৯ সালে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিপ্লোমা পাশ করে রোজি। এরপর নিজের স্বপ্নকে বাস্তব রূপ দিতে একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ভর্তি হন বি টেক করার জন্য। তবে রোজি হরিজন বা তফসিলি উপজাতি হওয়ায় সরকারের পক্ষ থেকে শুধুমাত্র তাঁর টিউশন ফি টুকুই সাহায্যের কথা বলা হয়।

টিউশন ফি দিলেও হোস্টেলের ফি এবং কলেজ বাস রোজিকে নিজেকেই দিতে হবে বলে জানায় কলেজ কর্তৃপক্ষ। অভাবের সংসারে রোজি ছাড়াও রয়েছে তার আরও ৪ বোন। দারিদ্রতা গ্রাস করে রেখেছে তাদের পরিবারকে। এই অবস্থায় স্থানীয় বিধায়কের অনুরোধ সত্ত্বেও বাকি ফিস মুকুব করতে রাজি হয়না কলেজ কর্তৃপক্ষ।

সংসারের আর্থিক অবস্থা খারাপ থাকলেও নিজের স্বপ্ন সত্যির পথে আর্থিক সংকট বাধা হয়ে দাড়ালেও, অবশেষে ১০০ দিনের কাজ শুরু করে রোজি। নিজের পড়াশোনার খরচ চালাতে বাধ্য হয়েই দুচোখে ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মাথায় তুলে নেয় মাটি ভর্তি ঝুড়ি। দিনে আয় হয় ২০৭ টাকা।

রোজির এই খবর জানাজানি হতেই তার পাশে এসে দাঁড়ায় স্থানীয় বিডিও। রোজির স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে তার পড়াশোনার সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন স্থানীয় বিডিও। এছাড়াও আরও অনেকে রোজির পাশে দাড়িয়েছে।

Back to top button