টাইমলাইনভারতরাজনীতি

বজায় রইল পাহাড়ি ট্রেন্ড! মাত্র ৩৮ হাজার ভোটে হেরে ইতিহাস গড়া হল না বিজেপির

বাংলাহান্ট সোশ্যাল : বজায় থাকল হিমাচলপ্রদেশের (Himachal Pradesh) চার দশকের ধারা। কোনও রাজনৈতিক দলই দ্বিগুণ বার জিতে ক্ষমতায় আসতে পারে। বিজেপির (BJP) সামনে বড় সুযোগ ছিল ইতিহাস গড়ার। কিন্তু অপূর্ণই রয়ে গেল স্বপ্ন। ভালো শুরু করেও হারের মুখ দেখল পদ্ম শিবির। নির্বাচন কমিশন সূত্র খবর গোটা হিমাচল প্রদেশে ভোট পাওয়ার নিরিখে মাত্র ৩৭৯৭৪টি ভোটে হেরেছে বিজেপি।

বজায় থাকল প্রায় চার দশকের ‘রেওয়াজ’। বিজেপিকে সরিয়ে হিমাচল প্রদেশের ক্ষমতা দখল নিল কংগ্রেস (Congress)। ৬৮ আসন-বিশ্চিষ্ট হিমাচল বিধানসভায় কংগ্রেসের ঝুলিতে এসেছে ৪০ টি আসন। এককভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে। নির্বাচন কমিশনের আপডেট অনুযায়ী, ২৫ টি আসনে জিতেছে বিজেপি। প্রাপ্ত ভোটের হার ৪৩ শতাংশ। কংগ্রেস পেয়েছে ৪০ টি আসন। প্রাপ্ত ভোটের হার ৪৩.৯ শতাংশ। তিনটি আসন পেয়েছেন নির্দল প্রার্থীরা।

বিজেপি জিতেছে ২৫ টি আসনে। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড্ডা এদিন বলেন, ‘হিমাচল নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই। আমি সাফল্য পাইনি, সেটা ঠিক নয়। কিন্তু রাজনীতির ধাঁচ পালটে গিয়েছে। আগে জয়ী এবং পরাজিত দলের মধ্যে পাঁচ শতাংশ ফারাক থাকত। এবার সেই ফারাক মাত্র ০.৯ শতাংশ। নয়া শাসক দলকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আমরা মানুষের স্বার্থে কাজ করে যাব।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে ঘটে উল্টো ঘটনা। হিমাচলপ্রদেশের ৬৮টি আসনের মধ্যে বিজেপি পেয়েছে ৪৪টি আসন। তাদের প্রাপ্ত ভোটের হার ৪৮.৭%। ২১টি আসন কংগ্রেসের ঝুলিতে। শতাংশের হিসেবে যা ৪১.৮।অন্যান্যের দখলে ৩টি আসন। ট্রেন্ড বজায় রেখে ২০২৭ সালের হিমাচল বিধানসভা কুক্ষিগত করতে আশাবাদী গেরুয়া শিবির।

Related Articles