টাইমলাইনভারতরাজনীতি

‘হিন্দু” শব্দ ভারতের না, এর মানে খুবই নোংরা! বিতর্কিত বয়ান দিয়ে শিরোনামে কংগ্রেস নেতা

বাংলহান্ট ডেস্ক : ‘হিন্দু (Hindu) কোনও ভারতীয় শব্দই নয়, বরং পার্সিয়ান শব্দ’, এমনই বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন এক কংগ্রেস নেতা। কর্ণাটকের (Karnataka) ওই কংগ্রেস নেতার নাম সতীশ জারকিহলি। সতীশ কর্ণাটকের প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সভাপতিও। একটি সভায় ভাষণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন হিন্দু একটি বিদেশি ভাষা। ভারতীয়দের সঙ্গে এর কোনও যোগাযোগ নেই। এরপরই কংগ্রেস নেতার মন্তব্য ঘিরে শুরু হয়ে যায় তমুল রাজনৈতিক তর্জা।

রবিবার কর্ণাটকের বেলাগাভি জেলার নিপ্পানি এলাকায় হিউম্যান ব্রাদারহুড অর্গানাইজেশনের একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় অংশ নেন সতীশ জারকিহলি। সেখানেই মঞ্চে বক্তব্য রাখতে উঠে কংগ্রেস নেতা দাবি করেন, ‘হিন্দু কোনও ভারতীয় শব্দই নয়। এটা আমাদের উপর জোর করে চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। হিন্দু শব্দের অর্থ খুবই নোংরা।’

কংগ্রেস নেতা আরও বলেন, ‘হিন্দু শব্দটি আদতে একটি পারস্য শব্দ। পারস্য কোনটা? পারস্য হল ইরাক ইরান, কাজাকিস্তান, উজবেকিস্তান। আমি জানি না কেন কিছু লোক বিদেশি একটু শব্দের জন্য এত লাফালাফি করে। এই রকম একটা বিদেশি শব্দকে কেন আমাদের উপর জোর করে চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে তা নিয়ে আমাদের আলোচনা করা উচিত।’

কংগ্রেস নেতা সতীশ জারকোহলির এই মন্তব্যের ভিডিও আগুনের মতো ছড়িয়ে পরে গোটা দেশ জুড়ে। রীতিমতো ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। সতীশের এই মন্তব্যের পরই বিরোধী শিবিরের আক্রমণে কেন্দ্রে রয়েছেন তিনি। একাধিক হিন্দু সংগঠনের পক্ষ থেকে সতীশের এই মন্তব্যকে কে তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে।

Related Articles