টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

উচ্চমাধ্যমিকে ৪৭৭, অথচ জানতেই পারলো না আকাশ, মুম্বাই থেকে বাড়ি ফিরল নিথর দেহ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা; যেখানে ভালো ফল করে ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখা যায়, বড় কিছু হওয়ার আশা তৈরি করা যায়। অথচ সেই পরীক্ষায় ভালো ফল করেও অবশেষে মৃত্যুই শেষ পরিণতি হলো দাসপুরের এক পড়ুয়ার। গতকাল প্রকাশিত উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার রেজাল্টে 477 পেয়েও অকালেই মৃত্যুর কবলে পড়লো দাসপুরের ব্রাহ্মণ বসান উচ্চ বিদ্যালয়ের এক পরীক্ষার্থী।

ব্রাহ্মণ বসান গ্রামের বাসিন্দা আকাশ মণ্ডল; বাবা স্বপনবাবু পেশায় স্বর্ণকার। বাংলায় থাকলেও আকাশের স্বপ্ন ছিল মুম্বইকে চোখের সামনে অন্তত একবার দেখা আর তা পূরণ করতেই মামার সঙ্গে বানিজ্যনগরীতে পৌঁছে যায় সে। তবে সেখানে তার জন্য অপেক্ষা করেছিল এক ভয়ঙ্কর ঘটনা!

সূত্রের খবর, মুম্বই এয়ারপোর্টে নামার পর থেকেই তার শরীর খারাপ হতে শুরু করে। এরপর মামার বাড়িতে পৌঁছলে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে সে এবং হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হল তাকে আর বাঁচানো যায়নি। যেদিন উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার কথা, সেই মুহুর্তেই তার মৃতদেহ পৌঁছে যায় বাড়িতে। স্বভাবতই এই ঘটনায় ভেঙে পড়েছে আকাশের পরিবার থেকে স্কুলের সকলে।

চিকিৎসক সূত্রে খবর, হার্ট ব্লক হয়ে যাওয়ার কারণে আকাশকে বাঁচানো যায়নি। তবে আচমকা কি কারণে এই পরিণতি, তা জানা যায়নি। আকাশের স্কুলের হেডমাস্টার আশিস মাইতি বলেন, “আকাশ খুব ভালো ছেলে। পড়াশোনার পাশাপাশি অন্যান্য একাধিক ফিল্ডে ভালো পারফর্ম করত। খেলাধুলোর প্রতি ঝোঁক ছিল। তবে উচ্চমাধ্যমিকে 477 নম্বর পেলেও সেটা জানতেই পারলো না, এটা খুব দুর্ভাগ্যজনক।”

Related Articles

Back to top button