টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গভারতরাজনীতি

মানুষের উন্নতি, দেশের উন্নতি চাই, প্রয়োজনে প্রতি দুমাসেও দিল্লী আসতে পারি: মমতা ব্যানার্জী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ বাংলার ক্ষমতায় তৃতীয়বার আসার পর এই প্রথমবার দিল্লী গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। ৫ দিনের দিল্লী সফর শেষে শুক্রবারই কলকাতা ফিরছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক হওয়ার পাশাপাশি, কেন্দ্র সরকার বিরোধী জোট গঠন করার বীজ বপন করে এসেছেন মাননীয়া।

এই সফরে এককভাবে বৈঠক সেরেছেন সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী, দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে। এমনকি ফোন মারফত কথাও বলেছেন লালুপ্রসাদ যাদবের সঙ্গেও। শুধুমাত্র NCP প্রধান শরদ পাওয়ারের সঙ্গে বৈঠক করতে পারেননি মুখ্যমন্ত্রী। তবে এবিষয়ে তিনি জানান, ‘এবার ফোনে কথা হলেও, পরের বার যখন দিল্লী আসব, তখন দেখা হবে শরদ পাওয়ারের সঙ্গে’।

Mamata Banerjee

দিল্লী গিয়েই বিরোধীদের একজোট করার এবং সরকার বিরোধী নানা কর্মকাণ্ড সেরে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মানুষের উন্নতি, দেশের উন্নতি চাই। কৃষকদের পাশেও রয়েছি। দেশকে এগিয়ে যেতেই হবে। পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি অত্যন্ত চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রয়োজনে প্রতি দুমাসেও দিল্লী আসতে পারি আমি’।

করোনা আবহে বারংবার ভ্যাকসিন বিভ্রাট নিয়ে কেন্দ্রের দিকে তোগ দেগেছেন মুখ্যমন্ত্রী। কেন্দ্র থেকে ঠিকমত ভ্যাকসিন পাঠাচ্ছে না, সে বিষয়েও বিরোধীদের সঙ্গে আলোচনা করেন মাননীয়া। তবে এবিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথাও হয় মমতা ব্যানার্জীর।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তৃতীয় ঢেউ থেকে কিভাবে দেশবাসীকে রক্ষা করা যায়, সেবিষয়ে নজর রাখার জন্য আবেদন করেছি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে। এবিষয়ে প্রায় সকল নেতাদের সঙ্গেই কথা হয়েছে’।

Related Articles

Back to top button