টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

দেশ চালানোর মতো টাকা নেই! প্রকাশ্যে স্বীকারোক্তি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ পাকিস্তানের (Pakistan) ‘উজিরে আজম” ইমরান খান (Imran Khan) মঙ্গলবার একটি অনুষ্ঠানে স্বীকার করে নেন যে, ওনার কার্যকালে পাকিস্তানের অবস্থা শোচনীয় হয়ে উঠেছে। ইমরান খান জানিয়েছেন যে, সরকারের কাছে দেশ চালানোর জন্য টাকা নেই আর এই কারণে অন্য দেশের কাছ থেকে ঋণ নিতে হচ্ছে। ইমরান খান বলেন, বৈদেশিক ঋণ বৃদ্ধি এবং কর রাজস্ব হ্রাস কোথাও জাতীয় নিরাপত্তার সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং সরকারের কাছে জনগণের কল্যাণে ব্যয় করার মতো পর্যাপ্ত সংসাধন নেই।

ট্রিবিউনের রিপোর্ট অনুযায়ী, ইসলামাবাদে ফেডারাল বোর্ড অফ রেভিনিউ-র প্রথম ট্র্যাক অ্যান্ড ট্রেস সিস্টেমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন ইমরান খান। সেখানেই তিনি বলেন, ‘আমাদের সবথেকে বড় সমস্যা হল, আমাদের কাছে দেশ চালানোর জন্য টাকা নেই। আর এই কারণে আমাদের ঋণ নিতে হচ্ছে অন্য দেশের থেকে।”

ইমরান খান আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, ঔপনিবেশিক যুগ থেকেই কর না দেওয়ার প্রবণতা চলে আসছে। অনেকেই ভাবেন তাঁদের টাকা ঠিকমতো তাঁদের উপর খরচ হচ্ছে না। আর এই কারণেই ট্র্যাক অ্যান্ড ট্রেস সিস্টেম লাগু করে চিনি, তামাকজাত দ্রব্য এবং সারের মতো অনেক কিছু গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে উৎপাদন আর বিক্রির নজরদারি করা হবে। ইমরান খানের মতে এরফলে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক অবস্থা স্থিতিশীল হবে আর রাজস্ব বৃদ্ধি হবে।

এছাড়াও ইমরান খান পাকিস্তানের প্রাক্তন সরকারকে দেশের বর্তমান অবস্থার জন্য দায়ী করেছেন। ইমরান খান ২০০৯ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত বিগত দুটি সরকারের সমালোচনা করে বলেন, প্রাক্তন সরকার স্থানীয় সংসাধন ব্যবহার করতে ব্যর্থ হয়েছিল দেখেই অন্য দেশের থেকে ঋণ নিতে হয়েছিল। উনি জানান, পূর্বের সরকার অনেক টাকা ঋণের বোঝা রেখে গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button