টাইমলাইনভারত

লকডাউনে মোদী সরকারের পথে বিশ্বকে চলার আবেদন করল WHO

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনাভাইরাসে (corona virus) রীতিমত ত্রস্ত ভারত (india)। পরিস্থিতি মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতেই ২১ দিনের লকডাউনের (lockdown) কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার (Central government)। করোনা মোকাবিলায় বিশ্বকে পথ দেখাবে ভারত, এই সার্টিফিকেট আগেই দিয়েছিলেন WHO-এর শীর্ষ কর্তা মাইকেল জে রায়ান। এবার খোদ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেডরোজ আধানম গেবিয়াসেস (Tedros Adhanom) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দরাজ সার্টিফিকেট দিয়ে দিলেন। লকডাউনে দেশের গরিবদের জন্য প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত আর্থিক প্যাকেজ বিশ্বের সব উন্নয়নশীল দেশের জন্য উদাহরণ হতে পারে। এমনটাই মনে করছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান।

lockdown corona Bangla Hunt Bengali News

WHO-এর শীর্ষকর্তা যে লকডাউনের পক্ষে নন, সেটা আগেও তাঁর কথায় বোঝা গিয়েছে। তিনি ঘোষণা করেছিলেন, শুধু লকডাউন করে করোনা রোখা যাবে না। সেজন্য প্রয়োজন আক্রমণাত্মক পদক্ষেপ। বৃহস্পতিবার টুইটারে তিনি বললেন, “লোকজনকে বাড়িতে থাকতে বলা, আর জনসংখ্যার গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ করার ফলে আসলে সমাজের সবচেয়ে গরিব এবং বিপর্যস্ত শ্রেণির অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে।” এরপরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) ঘোষিত আর্থিক প্যাকেজের প্রশংসা করেন টেডরোজ আধানম গেবিয়াসেস। তিনি বলেন,”আমি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে শুভেচ্ছা জানাই ১.৭ লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজের জন্য। মোদির এই প্যাকেজের মধ্যে আছে ৮০ কোটি গরিব মানুষের বিনামুল্যে রেশন, ২০ কোটি ৪০ লক্ষ দরিদ্র মহিলার জন্য সরাসরি অর্থ সাহায্য এবং ৮ কোটি পরিবারের জন্য সরাসরি গ্যাস সিলিন্ডার।”

who Bangla Hunt Bengali News

WHO কর্তা বলেন, অনেক উন্নয়নশীল দেশই ভারতের পথ অনুসরণ করতে পারে। অর্থনীতির ভেঙে পড়া রুখতে এবং গরিবদের সাহায্যের জন্য সব দেশকে বড় সিদ্ধান্ত নিতে হবে। উল্লেখ্য, দিন দুয়েক আগেই ভারতের অর্থনীতি (economy) নিয়ে বড় ঘোষণা করা হয়েছে রাষ্ট্রসংঘের আর্থিক রিপোর্টে। যাতে বলা হয়েছে গোটা বিশ্ব আর্থিক মন্দার দিকে এগোলেও ভারত এর কবল থেকে রক্ষা পাবে।

Back to top button