টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

ভবানীপুরে মমতা ব্যানার্জীর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উঠে এল বিজেপির এই ৪ হেভিওয়েট নেতার নাম

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ তৃণমূল শিবিরে খুশির হাওয়া, অবশেষে নির্ধারিত হল উপনির্বাচনের দিনক্ষণ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর (mamata banerjee) আসন ঠিকিয়ে রাখতে হলে, ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে তাঁকে জয়ী হয়ে দেখাতেই হবে। তবে উপনির্বাচনের দিনক্ষণ স্থির হতেই কোমড় বেঁধে লেগে পড়েছে বিজেপি শিবির।

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধীকে এক চুলও মাটি ছাড়তে নারাজ তাঁরা। সেই কারণে ভবানীপুর কেন্দ্রের প্রার্থী হিসেবে উঠে এল ৪ হেভিওয়েট তৃণমূল নেতৃত্বের নাম। শনিবার রাতে রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বদের মধ্যে ফোনালাপের মাধ্যমে উঠে এল এই ৪ নাম। জানা গিয়েছে, রবিবার সন্ধ্যায় ডাকা ভার্চুয়াল বৈঠকে তাঁদের নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনার পর, তাঁদের নাম পাঠানো হবে দিল্লীতে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে।

dilip ghosh suvendu adhikari

এই সম্ভাব্য তালিকায় স্থান পেয়েছেন দীনেশ ত্রিবেদী, তথাগত রায়, রুদ্রনীল ঘোষ এবং অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়রা। ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে এই ৪ নেতৃত্বের নাম উঠে এসেছে। পূর্বেই বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়ে এই ভবানীপুর থেকে দাঁড়িয়েই শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কাছে পরাজিত হয়েছিলেন রুদ্রনীল ঘোষ। আবার বোলপুরেও বিজেপির পরাজিত প্রার্থী ছিলেন অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, একুশের বিধানসভা নির্বাচনের সময় বেশকিছু কেন্দ্রে নির্বাচন অসম্পূর্ণ ছিল। আর তারউপর নন্দীগ্রামে বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর কাছে পরাজিত হয়েও, সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে দলের জয়ের কারণে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেছিলেন মমতা ব্যানার্জী। তাই হিসেব মত, নির্বাচনের ফল প্রকাশের ৬ মাসের মধ্যে তাঁকে উপনির্বাচনে জয়ী হয়ে হতেই হবে, তবেই নিজের আসন ধরে রাখতে পারবেন তিনি। আর সেই কারণেই, দ্রুতই উপনির্বাচন সম্পন্ন করতে চাইছে তৃণমূল শিবির।

Related Articles

Back to top button