টাইমলাইনস্বাস্থ্যখেলাকলকাতাক্রিকেট

ঋদ্ধির অস্ত্রোপচার সফল! নিজের মুখেই ঋদ্ধি ভক্তদের জানিয়ে দিলেন মাঠের ফেরার দিনক্ষণ।

এই মুহূর্তে ভারতের টেস্ট ক্রিকেট দলের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য উইকেট-রক্ষক হলেন বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা। দিনের পর দিন ঋদ্ধি যেন টেস্ট ক্রিকেটে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠছেন। ইডেনে ভারত বনাম বাংলাদেশ পিঙ্ক বল টেস্ট চলাকালীন আঙ্গুলে চোট পান ঋদ্ধি। তারপরে ঋদ্ধির চোট গুরুতর বলে জানায় ডাক্তার তাই মুম্বাইয়ে গিয়ে তিনি নিজের আঙ্গুলে অস্ত্রোপচার করলেন ঋদ্ধি। আঙ্গুলে সফলভাবে অস্ত্রোপচারের পর ঋদ্ধি এই মুহূর্তে দ্রুত ফিট হয়ে ওঠার জন্য ব্যাঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে রিহ্যাব করছেন। সেই সাথে ঋদ্ধি তার সমর্থকদের জানিয়ে দিলেন তিনি ফের কবে মাঠে ফিরতে চলেছেন।

2018 সালে কাঁদে চোট পাওয়ার পর কাঁদে অস্ত্রোপচার হয় বাংলার উইকেট-রক্ষক ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহার। এবার ফের একবার ঋদ্ধির অস্ত্রোপচার হল তবে এবার তার অস্ত্রোপচার হয়েছে হাতের আঙুলে। ইডেনে দেশের মাটিতে প্রথম দিনরাত্রি টেস্ট ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত বনাম বাংলাদেশ। সেই ম্যাচে উইকেট কিপিং করার সময় উইকেট-রক্ষক ঋদ্ধিমান সাহার অনামিকা ভেঙে যায়। কিন্তু তার সত্ত্বেও তিনি সেই সময় কিপিং থেকে সরে আসেন নি তিনি পুরো টেস্ট ম্যাচ উইকেট কিপিং করেছেন এবং দলকে জিতিয়েছেন।

দিন রাত্রি টেস্ট ম্যাচ শেষ হওয়ার পরে ঋদ্ধি চলে যান মুম্বাইতে এবং সেখানে গিয়ে তিনি নিজের আঙুলে অস্ত্রোপচার করেন। এই মুহূর্তে রেষ্টে থাকার জন্য ঋদ্ধি চলে গিয়েছেন নিজের শিলিগুড়ির বাড়িতে এবং সেখান থেকেই তিনি জানিয়েছেন যে আগামী পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে তিনি সুস্থ হয়ে ফের মাঠে নামবেন এবং তারপর নিজেকে পুরোপুরি ভাবে ফিট করে তোলার জন্য ব্যাঙ্গালুরুর জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে রিহ্যাব শুরু করবেন।

এই ব্যাপারে ঋদ্ধি জানান যে আর পাঁচটা সাধারণ চোটের মতই এটাও সাধারণ আঙ্গুল ভাঙ্গার চোট। তাই এই চোট থেকে সেরে উঠতে পাঁচ সপ্তাহের বেশি সময় লাগবে বলে তার মনে হয় না। তার আগেই তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে জানিয়েছেন। সেইসাথে ঋদ্ধি জানান যে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে আগামী বছর 21 শে ফেব্রুয়ারি থেকে টেস্ট সিরিজ শুরু হচ্ছে। তাই আমি সেরে ওঠার জন্য এখনও বেশ কিছুটা সময় পাব।

Back to top button