টাইমলাইনরাশিফল

এই ছয় রাশির জীবনে কালসর্প দোষ কাটতে চলেছে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ‘কাল’ শব্দের অর্থ ‘মৃত্যু’ আর ‘সর্প’ অর্থাৎ সর্পিলাকৃতি। কাল ও সর্প একত্রিত হলে তা, কোনও ব্যক্তির জীবনে ভয়ঙ্কর খারাপ সময় নিয়ে আসে। জ্যোতিষ বলে কালসর্পযোগের নেপথ্যে রাহু ও কেতুর ভূমিকা রয়েছে। জানা যাচ্ছে শীঘ্রই কয়েকটি রাশির জীবনে দীর্ঘ ১৫১ বছর পরে কাটতে চলেছে কালসর্প দোষ।

মীন, ধনু, সিংহ, কন্যা, বৃষ, কর্কট এবং মেষ এই ছয় রাশির জীবনে কালসর্প দোষ কাটতে চলেছে। কালসর্প দোষ কেটে ভীষন ভাল সময় আসতে চলেছে। এই ছয় রাশির জাতক জাতিকাদের ঝুলে থাকা সব কাজই এবার শেষ হয়ে যাবে। লক্ষ্যে পৌঁছতে জীবনসঙ্গীর সাহায্য পাবে ছয় রাশির জাতক জাতিকারা। পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রে উন্নতি ও নতুন নতুন আইডিয়াতে আপনার মন পরিপূর্ণ থাকবে।

 

কালসর্প দোষ কাটার পরে এই ছয় রাশির স্বাস্থ্যও অনেকটা ভালো হবে। তবে তেলে ভাজা খাওয়ার ওপরে একটু নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলোতেও মন দেবে ছয় রাশির ছাত্র-ছাত্রীরা। কাজের ক্ষমতা আগের চেয়ে অনেকটাই বাড়বে। বিয়ের প্রস্তাব পাবেন। বাবা-মার পরামর্শ মেনে কাজ করলে সাফল্য পাবেন। ধর্মের দিকেও মন বাড়বে।

পুরানের অনুসারে স্বরভানু নামে এক অসুর সমুদ্র মন্থনের সময়ে অমৃত আস্বাদন করেছিল। তার মুণ্ড ছিন্ন করেন মোহিনীরূপী বিষ্ণু। কিন্তু তার ছিন্নমুণ্ড ও ধড় অমৃতপানের ফলে অমরত্ব লাভ করে। মুণ্ডটি রাহু এবং দেহটি কেতু নামে পরিচিত হয়ে মহাবিশ্বে ঘুরে বেড়াতে থাকে। কেতুর দেহকে সর্পিল বলে কল্পনা করা হয়।বলা হয় কোনও ব্যক্তির জন্মকুণ্ডলিতে রাহু ও কেতুর অবস্থান বিন্দু দু’টির মাঝখানে যদি বাকি গ্রহগুলি আটকে পড়ে, তাঁর কালসর্পযোগ হয়। তবে সব ক্ষেত্রে এই যোগ সমান নয়।

Back to top button