টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

স্মৃতি, জেমিমার ব্যাট এবং স্নেহ ও দীপ্তির বোলিংয়ে ভর করে বার্মিংহ্যামে ব্রিটিশ বধ করে ফাইনালে ভারত

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: শুরুটা হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে জেতা ম্যাচ হাতছাড়া করে হার দিয়ে। আর আজ ইংল্যান্ডের মাটিতেই ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালে টিকিট নিশ্চিত করে নিল ভারত। এর সঙ্গে সঙ্গে কমনওয়েলথে ভারতীয় মহিলাদলের তরফ থেকে একটি পদক নিশ্চিত হয়ে গেল। ক্রীড়াপ্রেমীরা আশা করবেন প্রথমবার কমনওয়েলথের অংশ হওয়া মহিলা ক্রিকেট থেকে সর্বোচ্চ অর্থাৎ স্বর্ণপদকই যেন ভারতে আসে।

আজ টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতীয় অধিনায়ক হরমনপ্রীত কৌর। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা শেফালী ভার্মা সাধারণত আগ্রাসী মেজাজে শুরু করে থাকেন অন্যান্য দিন। কিন্তু আজকে সম্পূর্ণ চিত্রটা বদলে গেল। ভয়ঙ্কর আগ্রাসী মেতেছে আজ ব্যাটিং শুরু করেন বাঁহাতি তারকা ওপেনার স্মৃতি মান্ধানা। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারের ভেতরেই তিনি মাত্র ২৩ বলে নিজের অর্ধশতরান পূরণ করা নেন। স্মৃতি মান্ধানা ৩২ ফলে ৬১ রান করে ফিরে যান স্মৃতি। মেরেছিলেন ৮টি চার ও ৩টি ছক্কা। তিনি ফিরে গেলে ভারতের রান সংখ্যাকে গতি দেওয়ার দায়িত্ব নেন গত ম্যাচে বার্বাডোজের ফুটছে দুরন্ত অর্থ শতরান করা জেমিমা রদ্রীগেজ। তার ৩১ ফলের ৪৪ রানের দুরন্ত ইনিংসের দৌলতে ভারত নির্ধারিত কুড়ি ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রানের স্কোর খাড়া করে।

এরপর রান তাড়া করতে নেমে মরিয়া চেষ্টা করেছিলেন ইংল্যান্ডের ড্যানিয়েল ওয়াট (৩৫), নাতালিয়া স্কেভিয়াররা (৪১)। ১০ ওভারে শেষে ইংল্যান্ড ৮৬ রান তুলেও ফেলেছিল। শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৪ রান। কিন্তু স্নেহ রানার বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ের দৌলতের ৯ রানের বেশি তুলতে পারেনি ইংল্যান্ড। ৪ ওভারে মাত্র ২৮ রান দিয়ে দুটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নেন স্নেহ। দুরন্ত বোলিং করে ৪ ওভারে ১৮ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন দীপ্তি শর্মা। ১৬০ রানে শেষ হয় ইংল্যান্ডের ইনিংসটি।

অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারের পর খুবই ক্ষুন্ন হয়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা। কিন্তু তারপরও পরপর দুই ম্যাচে পাকিস্তান এবং বার্বাডোসকে কার্যত উড়িয়ে দিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট হয়েছিল ভারত। ইংল্যান্ড ভালো লড়াই করলেও ডেথ ওভার গুলিতে নিয়মিত উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের কাজটা কঠিন করে দেয় ভারতীয় বোলাররা। যার জন্য শেষ পর্যন্ত ভারত ফাইনালের টিকিট পেয়েছে। আজ রাত অর্থাৎ শনিবারের ভারতীয় সময় সাড়ে দশটা থেকে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড মহিলা দল। অস্ট্রেলিয়াকেই ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে চাইবে ভারত। কারণ তাহলে প্রথম ম্যাচের একটি বদলা নেওয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে।

Related Articles

Back to top button