টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

বোলারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পর রাহুল-স্কাই জুটির ওপর ভর করে প্রথম ম্যাচে প্রোটিয়াদের হারাল ভারত

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে কিছুটা বেকায়দায় পড়লেও অবশেষে জয় পেলো ভারতীয় দল। ভারতীয় বোলারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে জয়ের ভিত তৈরি হয়েছিল। তার ওপর দ্বিতীয় ইনিংসে বিজয়ের ইমারত গড়ে দেন লোকেশ রাহুল এবং সূর্যকুমার যাদব।

আজ টসে জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন রোহিত শর্মা। মঙ্গলবার পিঠে টান লাগায় আজ বুমরাকে নিয়ে ঝুঁকি নেওয়া হয়নি বরং তার বদলে দলে জায়গা দেওয়া হয়েছিল দীপক চাহারকে। অস্ট্রেলিয়া সিরিজে টানা তিন ম্যাচ খেলা চাহালকে বসিয়ে আজকে অশ্বিনকে দলে নেওয়া হয়েছিল।

নতুন বল হাতে ভুবনেশ্বর কুমার অথবা বুমরার অভাব একবারও অনুভব হতে দেননি দীপক ও অর্শদীপ। মাত্র তিন ওভারের মধ্যে তারা অর্ধেক দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান। এরপর মাঝের ওভার গুলিতে অক্ষর প্যাটেল এবং অশ্বিনের কৃপণ বোলিং এবং হর্ষল প্যাটেলের নিয়মিত উইকেট নেওয়া ভারতের জন্য গোটা ব্যাপারটাকে আরও সুবিধাজনক করে তোলে।

একা কুম্ভ হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোর বোর্ড টানছিলেন কেশব মহারাজ। ৩৫ বলে ৪১ রানের একটি কার্যকরী ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। কিছুটা সঙ্গ দিয়েছিলেন এইডেন মার্করম এবং ওয়েন পার্নেল। যার জন্য প্রোটিয়া শিবির ২০ ওভারে ১০৬ রান তুলতে পারে।

রান তাড়া করতে নেমে রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলিকে দ্রুত হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে গিয়েছিল ভারতীয় দল। কিন্তু ভারতের রক্ষাকর্তা হয়ে দাঁড়ান লোকেশ রাহুল এবং দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সূর্যকুমার যাদব। দুজনেই অর্ধশতরান করেন। রাহুল এক দিকটা ধরে রাখার কাজ করছিলেন আর সূর্যকুমার যাদব উল্টোদিকে যতটা আক্রমণ করা সম্ভব সেটুকু করে গিয়েছেন। ৫৬ বলে ৫১ করে অপরাজিত থাকেন রাহুল। ৩৩ বলে ৫০ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে ৩ ওভার ২ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ শেষ করেন সূর্যকুমার।

Related Articles