টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

সংযুক্ত রাষ্ট্রে চিনের মুখ বন্ধ করল ভারত, কাশ্মীর নিয়ে করেছিল বিতর্কিত মন্তব্য!

নয়া দিল্লীঃ বৃহস্পতিবার ভারত (India) সংযুক্ত রাষ্ট্রে (United Nations) চীনের (China) স্থায়ী মিশনের মুখপাত্র দ্বারা জম্মু কাশ্মীর Jammu-Kashmir) নিয়ে করা মন্তব্যকে খারিজ করে দেয়, আর জানিয়ে দেয় যে, জম্মু কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত প্রদেশ এগুলো ভারতের অভিন্ন অংশ ছিল, আছে আর থাকবে।

বিদেশ মন্ত্রালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব (Anurag Srivastava) বলেছেন, ভারত চীনের থেকে আশা করছে যে, তাঁরা ভারতের অভ্যন্তরীণ মামলা, দেশের সার্বভৌম ক্ষমতা আর অঞ্চলগত অখণ্ডতা নিয়ে কোন মন্তব্য করার থেকে বিরত থাকবে। উনি বলেন, ভারত এটা আশা করে যে, চিন জম্মু কাশ্মীর সমেত ভারতের মানুষের জীবন প্রভাবিত করার সীমান্তের উপরে সন্ত্রাসবাদের সমস্যা বুঝবে এবং সেটির নিন্দা করবে।

সংযুক্তরাষ্ট্রে চীনের স্থায়ী মিশনের মুখপাত্র বলেছিলেন যে, কাশ্মীর ইস্যু সংযুক্ত রাষ্ট্রের সুরক্ষা পরিষদের এজেন্ডায় প্রধান্য পেয়েছে আর চিন কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতির উপর কাছ থেকে নজর রাখছে। সংযুক্ত রাষ্ট্রের সুরক্ষা পরিষদের নেতৃত্বে বর্তমানে চিন আছে। চীনের আধিকারিক জানান, এখানে কাশ্মীর ইস্যু অনেক আগে থেকেই উঠে আসছে। আর এবার উচিৎ শান্তিপূর্ণ ভাবে এই সমস্যার সমাধান করা।

শ্রীবাস্তব বলেন, ‘সংযুক্ত রাষ্ট্রে চীনের স্থায়ী মিশনের মুখ্যপাত্র যেই বয়ান দিয়েছে, সেখানে জম্মু কাশ্মীরের সার্বভৌম ক্ষমতাকে আমরা অস্বীকার করি।” চীনের মুখপাত্র দ্বারা করা মন্তব্যের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা প্রশ্ন নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেওয়ার সময় এই কথা বলেন উনি।

উনি বলেন, ‘এই ইস্যুতে ভারতের অব্যাহত অবস্থান সম্পর্কে চীন ভালভাবেই অবহিত। জম্মু কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত প্রদেশ ভারতের অভিন্ন অংশ ছিল, আছে আর থাকবে।” উনি বলেন, ‘এর জন্য আমরা আশা করছি যে, চিন সমেত অন্যান্য দেশ গুলো ভারতের অভ্যন্তরীণ মামলায় কোন মন্তব্য করার থেকে বিরত থাকবে। আর সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতা সম্মান করবে।”

চিন জম্মু কাশ্মীরের পুনর্গঠন নিয়ে ভারতের সমালোচনা করেছে, বিশেষ করে লাদাখকে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল বানানোর জন্য চিন দিল্লীর কড়া সমালোচনা করেছে, কারণ চিন লাদাখের অনেক এলাকায় নিজের দাবি জাহির করে এসেছে।

Back to top button