টাইমলাইনভারতআন্তর্জাতিক

চীন ঘেঁষা WHO-কে কড়া ভাষায় চিঠি দিল ভারত, করতে হবে ভুলের সংশোধন

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ চীন (china) ঘেঁষা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (WHO) কাজকর্মের উপর আবারও আঙ্গুল তুলল ভারত (india)। শুধুমাত্র WHO-এর কার্য পদ্ধতির উপর আঙ্গুল তোলাই নয়, দিল করা হুঁশিয়ারির চিঠিও।

বিষয়টা হল, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বহুবার নিজেদের মানচিত্রে ভারতের অবস্থানকে অস্পষ্ট এবং ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করে এসেছে। এই বিষয়ে পূর্বেও দুবার ভুল মানচিত্র পেশ করার পর এই নিয় তিনবার WHO-র মানচিত্রে ভারতের ভুল অবস্থান দর্শনের কারণে কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দল ভারত।

এই বিষয়ে কড়া ভাষায় এক চিঠি লিখে WHO প্রধানকে এই ভুল সংশোধনের জন্য নির্দেশ দিয়েছে। চিঠিতে ভারত লিখেছে, দ্রুতই এই ভুল মানচিত্রকে ঠিক করা উচিত। এই বিষয়ে গত এক মাসে তিনবার WHO-কে চিঠি দিল ভারত। ডিসেম্বরে দুবার এবং জানুয়ারিতে একবার এই বিষয়ে চিঠি দিল ভারত। এখানেই শেষ নয়, গত সপ্তাহে যংযুক্ত রাষ্ট্রসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি ইন্দ্রমণি পান্ডে আরও একবার WHO প্রধানকে এই বিষয়ে স্মরণ করিয়েছিলেন।

WHO-এর পোর্টালে যে মানচিত্র দেওয়া রয়েছে, সেখানে ভারতের সীমানা সঠিকভাবে দেখানো হয়নি। যার কারণেই WHO-এর প্রধানকে ভারতের পক্ষ থেকে চিঠি লিখে ভুল সংশোধনের বিষয়ে বারবার সতর্ক করা হয়েছে। ভারতের পক্ষ থেকে চিঠিতে লেখা হয়েছে- ‘WHO-এর বিভিন্ন পোর্টালে প্রকাশিত মানচিত্রে ভারতের সীমানা ভুলভাবে বর্ণিত করার কারণে আমি ক্ষিপ্ত হয়েছি। এই বিষয়ে আমাদের পক্ষ থেকে পূর্বে পাঠানো চিঠির বিষয়ে আরও একবার WHO-কে স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি। এই বিষয়ে দ্রুত হস্তক্ষেপ করে ভারতের ভুল মানচিত্র সংশোধনের জন্য অনুরোধ করছি’।

প্রসঙ্গত, WHO-এর ওয়েব পোর্টালের বিভিন্ন সাইটে ভারতের যে মানচিত্র বর্ণিত আছে, সেখানে জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখকে ভারত থেকে পৃথক করে আলাদা রঙে দেখানো হয়েছে। পাশাপাশি ৫১৬৮ বর্গকিমি অঞ্চল জুড়ে থাকা যে সস্কগ্রাম ঘাঁটিকে ১৯৬৩ সালে অবৈধভাবে চীনের অংশ বলে জাহির করেছিল পাকিস্তান, ভারতের সেই অংশকে সম্পূর্ণ চীনের অংশ বলে দেখানো হয়েছে।

Back to top button