টাইমলাইনভারতরাজনীতি

২০৪৭ সালে ভারত ইসলামিক রাষ্ট্র, গৃহযুদ্ধের পরিকল্পনা নিয়ে চলছিল কাজ! PFI-র ডেরায় নথি উদ্ধার

বাংলাহান্ট ডেস্ক : মুসলিম কট্টরপন্থী সংগঠন পিএফআইকে (PFI) নিষিদ্ধ করেছে ভারত সরকার (Government of India)। তারপরেই উঠে আসছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। পিএফআইয়ের দপ্তর থেকে বোমা তৈরির ফর্মুলা থেকে শুরু করে ভারতকে ইসলাম রাষ্ট্র বানানোর পরিকল্পনা-সমস্ত বিষয়েরই নথিপত্র উদ্ধার করেছে কেন্দ্রীয় এজেন্সি। তবে এই নথিপত্রে কী লেখা রয়েছে, তা নিয়ে এখনও কোনও তথ্য জানা যায়নি। দু’দিন পিএফআইয়ের নানা দপ্তরে হানা দিয়েছিল এনআইএ ও ইডি (ED)। সেই সময়েই এই নথিপত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়।

বুধবার সকালেই পিএফআইকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। তারপরেই পিএফআইয়ের সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের যোগ প্রমাণ করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। পিএফআইয়ের অফিসগুলিতে বোমা তৈরির নিয়মকানুনের বই পাওয়া গিয়েছে। সহজলভ্য উপাদান ব্যবহার করে কীভাবে বোমা বানানো যায়, সেই উপায় লেখা বই উদ্ধার করা হয়েছে। এই নিয়মাবলি মেনে আইইডি বানানোর চেষ্টা করা হত বলে মনে করছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা।

কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশের তীব্র সমালোচনা করেছে পিএফআই। তারা জানিয়েছে, ‘ভারতের গণতন্ত্রের উপরে সরাসরি আঘাত হেনেছে সরকার। সেই সঙ্গে ভারতীয় সংবিধানের প্রতিও অশ্রদ্ধা প্রকাশ করা হয়েছে।’ বুধবার ইউএপিএ আইনের অধীনে আগামী পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে পিএফআই (PFI) সংগঠনকে।

শুধুমাত্র পিএফআই-ই নয়, এরসঙ্গে যুক্ত একাধিক সংগঠন যেমন সিএফআই, অল ইন্ডিয়া ইমাম কাউন্সিল, রিহ্যাব ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন, ন্যাশনাল উইমেন্স ফ্রন্টকেও বেআইনি কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত সংগঠন বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এই সমস্ত সংগঠনকেই এক সঙ্গে নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। বেআইনি কার্যকলাপ ও সন্ত্রাসবাদে ইন্ধন দেওয়ার জন্যই এই সংগঠনগুলিকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে ঘোষণা করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

Related Articles