টাইমলাইনভারত

অপেক্ষা মাত্র ৭৩ দিন, তারপরেই ভারতের বাজারে আসছে করোনা টীকা; পাওয়া যাবে বিনামূল্যেই

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ করোনা টীকা (corona vaccine) নিয়ে বড় ঘোষণা করল ভারত (India)। ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউট জানিয়েছে সবকিছু ঠিক থাকলে মাত্র ৭৩ দিনের মধ্যে ভারতের বাজারে আসতে চলেছে করোনা টীকা। ভারতের ১৩০ কোটি মানুষ এই টীকার আওতায় আসবে তা আবার বিনামূল্যে।

করোনা সংক্রমণ যত দ্রুত হারে বাড়ছে ততই টীকার জন্য চাতক পাখির মত চেয়ে আছে বিশ্ববাসী। রাশিয়া ইতিমধ্যেই সরকারি ভাবে টীকার ঘোষনা করলেই তা এখনো তৃতীয় ট্রায়াল সম্পূর্ণ করেনি। বাজার জাত হতেও লাগবে কয়েক মাস। এরই মধ্যে বড় ঘোষনা করল পুনের বায়োটেক সংস্থা সিরাম ইন্সটিটিউট। তারা জানিয়েছে, তাদেত তৈরি ভ্যাকসিনের ট্রায়াল ৫৮ দিনে শেষ হবে। ৭৩ দিনের মধ্যেই ভারতের বাজারে চলে আসবে ‘কোভিশিল্ড’.

করোনা ভ্যাকসিন/ corona Vaccine

একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রে জানা যাচ্ছে, ভারত সরকারের দেওয়া বিশেষ সুবিধায় যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে টীকার ট্রায়াল চলছে যা শেষ হতে সময় লাগবে আর ৫৮ দিন। গত ২২ আগস্ট এই ট্রায়ালের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে। ১৭ টি কেন্দ্রে ১৬০০ জনের মধ্যে পরীক্ষা করা হচ্ছে এই ভ্যাকসিন। আস্ট্রোজেনেকা নামের একটি সংস্থার থেকে এই টীকার স্বত্ব কিনেছে ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউট । যার ফলে তারা ভারত সহ ৯২ টি দেশে এউ টীকা বিক্রি করতে পারবে৷ সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ভ্যাকসিন ট্রায়ালের পর সবুজ সংকেত মিললেই প্রতিমাসে ৬ কোটি ভ্যাক্সিন তৈরি হবে৷ যা পরে বেড়ে দাঁড়াবে মাসিক ১০ কোটিতে

কিভাবে হবে টীকাকরন

জানা যাচ্ছে, করোনা টীকাকরন জাতীয় টীকাকরনের আওতায় পড়বে৷ অন্যান্য টীকার মত প্রতিটি ভারতবাসী এই টীকা পাবেন বিনামূল্যেই। ২০২২ সালের জুনের মধ্যে ৬৮ কোটি টীকা কিনবে ভারত সরকার। তবে এই টীকা যথেষ্ট নয়। তাই সিরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড ছাড়াও আইসিএমআর এবং ভারত বায়োটেকের উদ্যোগে তৈরি কোভ্যাক্সিন এবং জাইকোভি-ডি উপর নির্ভর করা হবে জানা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে ।

 

 

Related Articles

Back to top button