টাইমলাইনভারত

ভারতীয় রেলের অভিনব উদ্যোগ, যাত্রী সুবিধার্থে প্ল্যাটফর্মে সাবান শ্যাম্পু ওষুধ বিক্রি করবে কর্তৃপক্ষ

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ যাত্রী সুবিধার্থে ভারতীয় রেলওয়ে (Indian Railways) নিল অভিনব উদ্যোগ। নিজামউদ্দিন, দিল্লী, আনন্দ বিহার এবং সেইসঙ্গে নয়াদিল্লী রেলওয়ে স্টেশনে আগত যাত্রীরা তাদের প্রয়োজনীয় জিনিস পেয়ে যাবেন। ফুড কোর্ট, স্বয়ংক্রিয় ভেন্ডিং মেশিন, ক্রিম, সাবান, শ্যাম্পু, ওষুধ সহ নানান ব্যক্তিগত জিনিসের ভেন্ডিং মেশিনও বসানো হবে। প্রয়োজনে যাত্রীরা তা কিনতে পারবেন।

ইনস্টল করা হবে এলইডি টিভি
প্ল্যাটফর্মে দীর্ঘক্ষণ ট্রেনের জন্য অপেক্ষারত যাত্রী সুবিধার্থে ইনস্টল করা হবে ১৮.৫ ইঞ্চি এলইডি টিভি। যাত্রীদের বিনোদনের সুবিধার্থে এই টিভি ইনস্টলের সিদ্ধান্ত নিল রেল কর্তৃপক্ষ। বিনামূল্যেই যাত্রীরা এই সুবিধা পেতে পারবেন।

থাকবে সস্তার ওষুধের দোকানও
যাত্রী সুবিধার্থে থাকছে সস্তায় প্রয়োজনীয় ওষুধের দোকানও। পাইলট প্রকল্পের আয়ত্তায় আনন্দ বিহার রেলস্টেশনে এই ওষুধের দোকান খোলা হয়েছে। পরবর্তীতে নিজামউদ্দিন, সরাই কালে খান, পুরানো দিল্লী, সরাই রোহিলা স্টেশনেও খোলা হবে এই দোকান। যাত্রীরা তাদের প্রয়োজনে সেখান থেকে ওষুধ কিনতে পারবেন।

বসানো হবে ভেন্ডিং মেশিন
করোনা আবহে বন্ধ থাকা ক্যাটারিং নীতিতে সামান্য পরিবর্তন আনা হয়েছে। এবার থেকে যাত্রীরা প্রতি প্ল্যাটফর্মেই ভেন্ডিং মেশিনের সাহায্যে ফলের রস ছাড়াও অন্যান্য খাবার খেতে পারবেন। পাশাপাশি ষ্টেশনে প্রতিদিনের ব্যবহার যোগ্য সাবান, শ্যাম্পুও রাখা থাকবে। প্রয়োজনে যাত্রীরা তা কিনতে পারবেন। সেইসঙ্গে ট্রেনের ভেতর থাকবে বিনোদনের ব্যবস্থাও।

প্রবীণদের জন্যও থাকছে বিশেষ ব্যবস্থা
রেল কর্তৃপক্ষের এই নতুন পরিকল্পনায় প্রবীণ নাগরিকদের জন্য থাকছে এক বিশেষ ব্যবস্থা। প্রবীণ নাগরিকদের সুবিধার্থে ষ্টেশনে ব্যাটারি রিক্সার ব্যবহার করা হবে। যা ব্যবহারের জন্য যাত্রী পিছু ৫০ টাকা করে নেওয়া হবে। তবে রেল কর্তৃপক্ষ হিসাবে করে দেখেছে, এর ফলে প্রতি বছর প্রায় ৫১.৬৪ লক্ষ টাকা রাজস্ব আদায় হবে। এর ফলে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষও কিছুটা লাভবান হবে।

Back to top button